৭:২৮ এএম, ২১ অক্টোবর ২০১৭, শনিবার | | ৩০ মুহররম ১৪৩৯

South Asian College

পিরোজপুরে রিকসা চালককে হত্যার দায়ে পিতা পুত্রের সাজা

০৫ অক্টোবর ২০১৭, ০৪:০১ পিএম | রাহুল


মুহাঃ দেলোয়ার হোসাইন,পিরোজপুর সংবাদদাতাঃ পিরোজপুরে হত্যা ও মারধর মামলায় হানিফ হাওলাদার (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন ও তার ছেলে ইব্রাহিম হাওলাদারকে (৩০) পাঁচ বছরের কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত।  বিচারক হানিফকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ছয় মাসের কারাদন্ড ও ইব্র্রাহিমকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার  দুপুরে পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এস এম জিল্লুর রহমান এ আদেশ দেন। 
 দন্ড প্রাপ্ত হানিফ ও ইব্রাহিমের বাড়ি ভান্ডারিয়া উপজেলার তেলিখালী গ্রামে। 

মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, ২০০৫ সালের ১৯ জুন দুপুরে বসতবাড়ির রেইনট্রি গাছের ডাল কাটা নিয়ে মোস্তফা হাওলাদারের সঙ্গে প্রতিবেশি হানিফ ও তার ছেলের ঝগড়া হয়।  এসময় হানিফ ও তার ছেলে মোস্তফার ওপর হামলা চালায়। 

মোস্তফাকে উদ্ধার করতে প্রতিবেশি এছাহাক ও মোস্তফা সিকদার এগিয়ে এলে ইব্রাহিম তাদেরও কুপিয়ে আহত করেন।  পরে তাদের উদ্ধার করে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

হামলার ঘটনায় মোস্তফা হাওলাদারের স্ত্রী জাহানুর বেগম বাদি হয়ে ২৪ জুলাই ভান্ডারিয়া থানায় পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।  ২৬ জুলাই মোস্তফা হাওলাদার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।  তিনি রিকসা চালিয়ে সংসার চালাতেন। 

২০০৬ সালের ৫ জানুয়ারি উপ পরিদর্শক (এসআই) মাকসুদুর রহমান তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।  ৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক হানিফকে যাবজ্জীবন, তার ছেলে ইব্রাহিমকে পাঁচ বছরের কারাদন্ড ও হানিফের স্ত্রীকে খালাস দেন।