৬:৫৩ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার | | ৬ সফর ১৪৪০


‘পূর্ণাঙ্গ’ নথিতে সই করলেন ট্রাম্প-কিম

১২ জুন ২০১৮, ০১:৩৩ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন ‘পূর্ণাঙ্গ’ নথিতে সই করেছেন।  আজ মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরের কাপেলা হোটেলে বৈঠক শেষে দুই নেতা চুক্তিতে সই করেন। 

তাৎক্ষণিকভাবে চুক্তির কোনো বিষয়স্তু জানা যায়নি।  তবে উভয়পক্ষ দাবি করেছে, বৈঠকে তারা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সাফল্য পেয়েছে। 

উত্তর কোরিয়ার নেতা বলেন, ‘আজ আমরা ঐতিহাসিক বৈঠক করলাম।  এর মাধ্যমে অতীত ইতিহাস থেকে উত্তরণ এবং নতুন করে শুরু করছি। ’

আর ট্রাম্প বলেন, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক অতীতের তুলনায় ভিন্ন হবে।  তিনি বলেন, ‘আমরা দুজনই কিছু করতে যাচ্ছি।  আর বিশেষ সম্পর্ক স্থাপন করেছি।  বাকি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ও ভয়ংকর একটি সমস্যা নিয়ে আমরা কাজ করব। ’

ট্রাম্প বলেন, ‘সবাই যা আশা করেছিল তার তুলনায় আমাদের জন্য খুব ভালো হয়েছে। ’

পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ সম্পর্কে জানতে চাইলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা দ্রুত এই প্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছি। ’

সেন্তোসা দ্বীপের কাপেলা সিঙ্গাপুর হোটেলে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে দুই দেশের প্রতিনিধিদল কাঠের একটি টেবিলে মুখোমুখি বসে।  উভয় পাশেই উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা উড়ছিল। 

সকালে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে কিম বলেন, তাঁর বিশ্বাস এই বৈঠক শান্তির পথে বিশাল উন্নতি।  তাঁর সঙ্গে একমত পোষণ করে ট্রাম্প বলেন, ‘অবশ্যই পথ অনেক কঠিন হবে।  তবে আজ থেকে একটা ভালো দিন শুরু হলো। ’

চুক্তি স্বাক্ষরের আগে দুই কাপেলা হোটেলের লাইব্রেরিতে একান্তে ৪৫ মিনিট বৈঠক করেন।  তাদের সঙ্গে কেবল দোভাষী ছিলেন।  এরপর তারা বেরিয়ে এসে বারান্দা থেকে সাংবাদিকদের উদ্দেশে হাসিমুখে হাত নাড়েন। 

মার্কিন প্রতিনিধি দলে আছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও, চিফ অব স্টাফস জন কেলি ও ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইজার জন বল্টন।  হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স, ফিলিপাইনে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত সুং কিম ও ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের এশিয়াবিষয়ক সিনিয়র পরিচালক ম্যাট পটিংগার প্রতিনিধি দলে রয়েছেন। 

উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধি দলে রয়েছেন ক্ষমতাসীন দল কোরিয়ার ওয়ার্কার্স পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান কিম ইয়ং চল, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের পরিচালক রি সু ইয়ং, পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়ং হো ও উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী চো সন হুই। 


keya