১০:৩২ এএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৯ মুহররম ১৪৪১




‘প্রতিযোগিরা কখনো হারতে পারে না’

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম |


এসএনএন২৪.কম : চূড়ান্ত পর্ব সম্পন্ন হয়েছে সপ্তম ডাচ্-বাংলা ব্যাংক বাংলাদেশ ফিজিক্স অলিম্পিয়াডের।  আর এই  চূড়ান্ত পর্বে ৬০জন শিক্ষার্থী মনোনীত হন।  ৭ম-৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ‘এ’, ৯ম-১০ শ্রেণির শিক্ষার্থীদর ‘বি’ এবং একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ‘সি’ ক্যাটাগরিতে অন্তর্ভূক্ত করে এ অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হয়।  পরে প্রতিটি ক্যাটাগরি থেকে ২০জন করে মোট ৬০জনকে জাতীয় পর্যায়ে চূড়ান্ত পর্বে মনোনীত করা হয়।  মনোনীত প্রার্থীদের গলায় মেডেল পরিয়ে দেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। 

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, ‘প্রতিযোগিরা কখনো হারতে পারে না।  পুরস্কার পেলে বুদ্ধিবৃত্তির বিকাশ ঘটে।  আর পুরস্কার না পেলে পাওয়ার স্পৃহা জাগে, তারা আরও বেশি সজাগ থাকে।  পুরস্কার পাওয়ার জন্য বেশি করে পড়াশুনা করে। ’
শনিবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। 

এ বছর জাতীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতার তিন ক্যাটাগরিতে ১২ জেলার ১০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী অংশ নেন।  তাদের নিয়ে বাংলাদেশ ফিজিক্স অলিম্পিয়াডের আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।  সেখান থেকে আঞ্চলিক পর্বে ৭০৭ জন শিক্ষার্থী জাতীয় পর্যায়ে অংশ নেয়ার সুযোগ পায়। 

 এর মধ্যে থেকে পাঁচজন প্রতিযোগী ইন্দোনেশিয়ায় অনুষ্ঠেয় আন্তর্জাতিক ফিজিক্স অলিম্পিয়াড ও আটজন প্রতিযোগী রাশিয়ায় অনুষ্ঠেয় এশিয়ান ফিজিক্স অলিম্পিয়াডে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন। 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান সায়েম আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আরশাদ মোমেন, বাংলাদেশ ফিজিক্স অলিম্পিয়াডের সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. আব্দুস ছাত্তার প্রমুখ।  অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক খোরশেদ আহমেদ কবির। 

নিশি