১১:৪৭ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শুক্রবার | | ১০ মুহররম ১৪৪০


প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষার খাতার পূণ:মূল্যায়ন এর দাবি

১২ জুলাই ২০১৮, ০৫:১৮ পিএম | মাসুম


গোপাল চন্দ্র দে, ভোলা প্রতিনিধি : ভোলায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষার খাতার পূণ:মূল্যায়ন ও উর্ত্তীণের সংখ্যা বাড়ানোর দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

১২ জুলাই (বৃহস্পতিবার) দুপুর ২টার দিকে ভোলা শহরের একটি পত্রিকা অফিসে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এমন দাবি করেন নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারীরা। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মো. মাকসুদুর রহমান, (রোল নং- ৭১১৪২১৬)। 

তিনি বলেন, ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালগেুলোতে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়।  আমরা ভোলার পরীক্ষার্থীরা বিজ্ঞপ্তির আলোকে চাকরির জন্য আবেদন করি।  ওই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে চলতি বছরের ১১মে (শুক্রবার)। 

নিয়োগ পরীক্ষায় ভোলা জেলার প্রায় সাড়ে ৬ হাজার পরীক্ষার্থী অংশ নেয়।  পরীক্ষার প্রশ্নপত্র অনুযায়ী ৮০টি প্রশ্নের মধ্যে আমরা
গড়ে ৭০-৭৫ প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি।  কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় ভালো পরীক্ষা দেওয়া সত্বেও আমরা উর্ত্তীণ হতে পারেনি। 

গত ৮ জুলাই ওই পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়। তাতে আশানুরূপ ফলাফল আসেনি। 

তারা আরও বলেন, পরীক্ষার্থীদের অনেকের সরকারি চাকুরীতে অংশ নেওয়ার বয়ষ শেষ। এ অবস্থায় ভালো পরীক্ষা দিয়েও অজানা কারনে তারা উর্ত্তীণ হতে পারেনি। এতে তাদের ভবিষ্যত জীবন হয়তো অন্ধকারে ঢেকে যাবে।  তারা হতাশায় দিন কাটাচ্ছে। 

মাকসুদ বলেন, ভোলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রায় ৪ শতাধিক পদ খালি রয়েছে।  কিন্তু নিয়োগ পরীক্ষায় সাড়ে ৬ হাজার পরীক্ষার্থীর মধ্যে মাত্র ৩৫৭জনকে উত্তীর্ন করা হয়েছে।  যা পদের তুলনায় অনেক কম।  এ ছাড়া গত ৮ জুলাই পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের তিন দিন পর অন্যান্য জেলাগুলোতে ফলাফল পূণমূল্যায়ন করে সংশোধিত ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।  কিন্তু ভোলা জেলার ফলাফল পূনঃমূল্যায়ন করে সংশোধিত ফলাফল প্রকাশ করা হয়নি।  ভোলার নিয়োগ পরীক্ষা সংশোধন করে ফলাফল পূণমূল্যায়ন করার জোর দাবি জানান। 

তিনি বলেন, তাদের পরীক্ষার খাতা সঠিতভাবে মূল্যায়িত হয়নি।  সঠিকভাবে মূল্যায়িত হলে ভোলা থেকে আরও যোগ্যপ্রার্থী বেরিয়ে আসবে।  সরকারের কাছে ভোলার খাতাগুলো পূনঃমূল্যায়ন করার দাবি জানাই। 

এসময় পরীক্ষার্থীদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন তানিয়া ইসলাম তনু রোল নম্বর- ৭১১৮৬৮৭, শামিমা আক্তার তনু রোল নম্বর- ৭১১৬০২৩ প্রমূখ। 


keya