৯:৪৮ এএম, ১৮ জানুয়ারী ২০২০, শনিবার | | ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১




প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে বিভিন্ন দলের সংসদ সদস্য প্রার্থীরা

০৯ জানুয়ারী ২০২০, ০১:১৮ পিএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম: প্রিজাইডিং অফিসারের হাতে ২৫ শতাংশ ভোট আছে এমন খবর সম্পূর্ণ মিথ্যা জানিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেছেন, বিষয়টি অনেকটা চাঁদে মানুষের চেহারা দেখা যাওয়ার মতো। 

নির্বাচনের বিধি অনুসারে কোথাও ১ শতাংশ ভোটও প্রিজাইডিং অফিসারের হাতে আছে এমন কিছু লেখা নেই।  এসব খবর ভিত্তিহীন। 

বুধবার চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, আগামী ১৩ জানুয়ারি জাতীয় সংসদের চট্টগ্রাম-৮ আসনের নির্বাচন।  এ আসনের প্রতিটি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ হবে। 

ইভিএমে ভোট হলে ভোটারদের মধ্যে আর কোনো ভীতি থাকবে না, ভোট কারচুপি করা যাবে না, ব্যালট চুরি করার কোনো সুযোগ নেই।  তাছাড়া একজনের ভোট আরেকজন দিতে পারবে না। 

একজনের ভোট দেওয়া শেষ হলেই অন্যজন ভোট দিতে পারবেন।  শুধু তাই নয়, ইভিএম-ই একমাত্র উপায় যেখানে যার ভোট তিনি দিতে পারবেন।  জাল ভোট দেওয়ার সুযোগ নেই। 

প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক করেন আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের সংসদ সদস্য প্রার্থী ও রাজনীতিকরা। 

এ সময় নির্বাচনী এলাকায় ধানের শীষের প্রতীক ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ করেন বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ান। 

তিনি বলেন, আমার কর্মীদের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা বন্ধ করার জন্য হুমকি -ধমকি দেওয়া হচ্ছে। 

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেছেন, আমি বীর মুক্তিযোদ্ধা।  মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ নিয়ে নির্বাচন করছি।  আমার নির্বাচনী এলাকায় কোনো ধরনের সংঘাত সৃষ্টি হতে দিইনি।  এ এলাকার সাধারণ জনগণ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে। 

এ সময়  চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেসুর রহমান, যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মেদ, রিটার্নিং অফিসার  মো. হাসানুজ্জামানসহ চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 


keya