৮:৫৫ এএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০


বিপাকে অসহায় বাবা

পালাক্রমে মানষিক ভারসাম্যহীন হয়ে গেছে দুই ছেলে

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:২২ পিএম | সাদি


জাহিদ হোসাইন, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করে ছেলে দুটিকে বড় করেছি।  স্বপ্ন ছিল বড় হয়ে তারা আমাদের কষ্টকে লাঘব করবে।  আমাদের আর কোন দুৎখ কষ্ট থাকবে না।  কিন্তু আমার সব স্বপ্ন বেঙে চৌচির হয়ে গেছে।  মানষিক ভারসাম্য হারিয়ে উন্মাদ হয়ে গেছে আমার ছেলে দুটি।  বড় ছেলে ফয়সাল মাহমুদ(২১) ও ছোট ছেলে গোলাম মোস্তাফ(১৭) এর বিষয়ে কাঁদতে কাঁদতে এসব কথা বলছিলেন সাতক্ষীরার দেবহাটার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের ৯নং ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা জেন্নাতুল ইসলাম(৫৫)। 

তিনি আরো বলেন, সাতক্ষীরা ও খুলনায় চিকিৎসা ছেলে দুটিকে চিকিৎসা করিয়েছি কিন্তু কোন লাভ হয়নি।  ছাড়া পেলে তারা আমাদের ও প্রতিবেশিদের বাড়ি-ঘরের বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাংচুর করে।  বাধ্য হয়ে তাদেরকে লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে রাখতে হয়। 

চিকিৎসকেরা বলেছেন, ভারতে নিয়ে উন্নত চিকিৎসা করাতে পারলে ছেলে দুটোকে ভালো করা যাবে।  কিন্তু তাদের চিকিৎসার জন্য কয়েক লক্ষ টাকা প্রয়োজন।  আমি গরিব মানুষ।  এত টাকা কিভাবে যোগাড় করবো বুঝতে পারছিনা। 

এ ব্যাপারে ইউপি মেম্বর মনিরুজ্জামান বলেন, আমি তাদের বিষয়ে জানি।   পালাক্রমে তারা দুই ভাই মানষিকভাবে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে।  আমি তাদের দুই ভাইকে দুইটি প্রতিবন্ধি কার্ড করে দেবো।  এছাড়া আমার ওয়ার্ডের বাসিন্দা হিসেবে তাদের সুস্থতার জন্য সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। 

নওয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবর রহমান বলেন, তাদেও সম্পর্কে আমার কোন কিছুই জানা নেই।  তবে এমন ঘটনা ঘটলে অবশ্যই আমার পক্ষ হতে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। 

মানষিক ভারসাম্যহীন দুই ছেলের জন্য সহযোগিতা করতে তার ০১৯৪৬৪১৯৯০৯ নম্বরে যোগাযোগের অনুরোধ করেছেন বাবা জেন্নাতুল ইসলাম। 


keya