১:২১ এএম, ১২ এপ্রিল ২০২১, সোমবার | | ২৯ শা'বান ১৪৪২




বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রাউজান ম্যারাথন উপলক্ষে মিট দ্যা প্রেস উপজেলা প্রশাসনের

০৪ মার্চ ২০২১, ০৫:০৯ পিএম |


প্রদীপ শীল, রাউজানঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রাউজান ম্যারাথন’ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যােগে মিট দ্যা প্রেস ও এক রঙের লাল সবুজে শাড়ী ও লাল সবুজ খচিত টি-শার্ট বিতরণ করা হয়েছে। 

০৩ মার্চ বুধবার সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ। 

এক রঙের লাল সবুজে শাড়ী ও লাল সবুজ খচিত টিশার্ট বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রেলপথ মন্ত্রনালয় সমসম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাউজানের সংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। 

বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল।  বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাজী আবদুল ওহাব, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, রাউজান পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, সহকারী ককমিশনার ভূমি অসীত দশী চাকমা, রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল হারুন, বশির উদ্দিন খান প্রমুখ।  সভায় উপজেলার বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, ইউপি চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর, শিক্ষক, উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীলগের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন উপাস্থিত ছিলেন। 

মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে নির্বাহী কর্মকর্তা জানান,  আগামী ৬ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য ম্যারাথন কর্মসূচীতে উপজেলা প্রশাসন, সাংবাদিক, উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলী ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করবে। 

ম্যারাথন শুরু করা হবে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়কের সর্তারঘাটের হালদা সেতু থেকে।  প্রায় ১০ কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে জলিল নগর বাস স্টেশন এলাকায় গিয়ে শেষ হবে।  উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল জানান, ম্যারাথনের অগ্রভাবে থাকবে লাল-সবুজ রংয়ের শাড়ী পরিহিত এক হাজার নারী ও মুজিববর্ষের লগো সম্বলিত লাল-সবুজ রংয়ের টি-শার্ট পরিহিত এক হাজার পুরুষ। 

লাল-সবুজের সাজে দুই হাজার নারী-পুরুষসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী অংশগ্রহণ্যে মধ্য দিয়ে ম্যারাথন শেষ হবে।  ওইদিন ম্যারাথনে অংশগ্রহণকারীদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ খাবার, পানি, খাবার স্যালাইন, অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রাখা হবে।  সহযোগিতা করবে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।