৬:৪৪ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার | | ১৯ সফর ১৪৪৩




বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট কতৃক বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন।

১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৫৬ পিএম |


নকিব ছিদ্দিকী:

বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্ম ও রাজনৈতিক জীবন অসামান্য গৌরবের।  ধর্মনিরপেক্ষতা রাষ্ট্র পরিচালনার একটি নীতি।  যে নীতিকে পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়নের স্বপ্ন দেখেছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান । 

 তিনি চেয়েছিলেন প্রত্যেকে নিজ নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালন করবে।  পূর্ণ নিরপেক্ষতা ছাড়া পক্ষপাতহীন ন্যায় বিচার করা যে সম্ভব নয় তা বঙ্গবন্ধু উপলব্ধি করেছিলেন। 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ পূরণে দেশের বৌদ্ধ জনসাধারণের ধর্মীয় কল্যাণ সাধনের লক্ষ্যে ১৯৮৩ সনের মহামান্য রাষ্ট্রপতির ৬৯ নম্বর অধ্যাদেশ-এর ৩ ধারার বিধান অনুসারে ১৯৮৪ সনে বৌদ্ধ_ধর্মীয়_কল্যাণ_ট্রাস্ট" প্রতিষ্ঠিত হয়। 

বৌদ্ধ ধর্মীয় উপসনালয়ের রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামতের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে বৌদ্ধ ধর্ম চর্চার ক্ষেত্র তৈরী, সামগ্রিক উন্নয়ন, উপাসনালয়ের পবিত্রতা রক্ষা প্রভৃতি কার্যগুলো সুচারু রূপে সম্পাদনের লক্ষ্যে যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন অব্যাহত রয়েছে। 

দেশের শহর, বন্দর ও গ্রামাঞ্চলের এসব বৌদ্ধ বিহার/প্যাগোডা/ উপসনালয়ের সংস্কার ও মেরামতের জন্য বার্ষিক অনুদান প্রদান করা হয়। 

 বর্তমান ট্রাস্টি বোর্ডের উদ্যোগে বাংলাদেশে যে সব অস্বচ্ছল বৌদ্ধ বিহারের আবাসিক ভিক্ষু/শ্রমন ও অসহায় ব্যক্তির চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদানের পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। 

বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর হতে শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা এবং প্রবারণা পূর্ণিমা ও দানোত্তম কঠিন চীবর দান উৎসব উদযাপন উপলক্ষে ট্রাস্টের আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রতিবছর বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের বরাবরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল হতে বিশেষ অনুদান প্রদান করে আসছেন।  

গেল বুধবার ০৮/০৯/২০২১খ্রি:  বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ  ট্রাস্টের নবগঠিত ট্রাস্টিবৃন্দ  সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান-২ বেগম আরমা দত্ত এম.পি  নেতৃত্বে গোপালগঞ্জ জেলার ঐতিহাসিক টুঙ্গিপাড়া উপজেলায় বাংলাদেশের মহান স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর সমাধিতে ফুল দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। 

এসময় উপস্থিত সকলে জাতির পিতার পারলৌকিক শান্তি কামনা করে যার যার ধর্ম অনুযায়ী দোয়া ও প্রার্থনা  করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন। 

 অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া, ট্রাস্টি রঞ্জন_বড়ুয়া, ট্রাস্টি মিথুন রশ্মি বড়ুয়া, ট্রাস্টি ববিতা বড়ুয়া, ট্রাস্টি  রুপনা চাকমা,  ট্রাস্টি  মং ক্য চিং চৌধুরী, ট্রাস্টি  জয়সেন তঞ্চঙ্গ্যা,  ট্রাস্টি : জ্যোতিষ  সিংহ। 

ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া বলেন, বঙ্গবন্ধু  চেয়েছিলেন প্রত্যেকে নিজ নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালন করবে।  বর্তমান সরকারের আমলে সকল ধর্মের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে।  এটাই জাতিরপিতা সোনার বাংলা। 

ট্রাস্টি ববিতা বড়ুয়া বলেন, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের এই প্রথম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন আমাদের প্রতিনিধি দলের।  বঙ্গবন্ধু না হলে আজ আমরা স্বাধীন দেশে বসবাস করতে পরতাম না, স্বাধীন ভাবে কথা বলতে পারতাম না।  বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ।  

আরও উপস্থিত ছিলেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব  মু: আ: আউয়াল হাওলাদার, 

উপসচিব ও প্রকল্প পরিচালক  মো: সাখাওয়াত হোসেন, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সচিব জয়দত্ত বড়ুয়া, উপ-পরিচালক : শ্যামল মিত্র বড়ুয়াসহ ট্রাস্টের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।