৭:০৪ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৮, সোমবার | | ৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


বান্দরবানে রোটারী ক্লাবের আয়োজনে বৃক্ষরোপণ

০৪ আগস্ট ২০১৮, ০৫:৫৭ পিএম | মাসুম


রিমন পালিত বান্দরববান প্রতিনিধি: রোটারী ক্লাব অব বান্দরবান এর উদ্যোগে ৪আগস্ট শনিবার বিকালে বান্দরবান নতুন পাড়া অবস্থিতত বীর বাহাদুর বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বৃক্ষরোপন অভিযান-২০১৮এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।  বৃক্ষরোপন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বৃক্ষরোপন করেন বান্দরবানের নগর পিতা পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী। 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন রোটারী ক্লাব অব বান্দরবান প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান কাজল কান্তি দাশ,সাবেক প্রেসিডেন্ট ও বৃক্ষ রোপন অভিযান এর আহ্বায়ক রোটারিয়ান অমল কান্তি দাশ, রোটারিয়ান মোজাম্মেল হক লিটন, রোটারিয়ান ঝন্টু দাশ,সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান আনিসুর রহমান সুজন, সদ্য সাবেক  সাধারণ সম্পাদক রোটারিয়ান মো: মহিউদ্দিন, রোটারিয়ান মোঃ আনোয়ার হোসেন, এ্যাডভোকেট স্বপন, রোটারিয়ান খলিলুর রহমান সোহাগ, রোটারিয়ান মো: মাহাবুবুর রহমান,রোটারিয়ান আশুতোষ দাশ,রোটারিয়ান মোঃ মিলন,রোটারিয়ান তরুন কান্তি দাশ, বীর বাহাদুর বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: ছলিম উল্লাহ সহ রোটারী ক্লাব অব বান্দরবানের সকল রোটারিয়ানগণ। 

বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির প্রধান অতিথির বক্তব্যে পৌরসভার মেয়র বলেন,বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে  বলেন  প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের খালি  জায়গায়,সড়ক,মহাসড়ক ও রেললাইনের দু'পাশে, চরভূমি, বাড়ির চারপাশসহ পততি জমিতে বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে এ দেশকে আরও সমৃদ্ধশালী হিসাবে গড়ে তোলার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান। 

অন্যান্য বক্তারা বলেন,রোটারী ক্লাবের সকল কর্মকান্ডকে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য মানব সেবাই তাদের আরো নিবেদিত হয়ে কাজ করতে হবে।  এসময় রোটারী ক্লাব অব বান্দরবানের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো: মহিউদ্দিন বলেন,বৃক্ষরোপন একটি অত্যান্ত মহৎ কাজ, বৃক্ষরোপনকে আমরা সামাজিক আন্দোলন হিসেবে নিতে পারলে সকল শ্রেণীর জনসাধারণ বৃক্ষরোপনে আরো বেশী করে উৎসাহিত হবে। 

তিনি আরো বলেন,আমরা প্রথমে বীর বাহাদুর নিকেত বিদ্যালয়ে ৫৫ টি মিশ্র ফলের চারা গাছ রোপণের মাধ্যমে আমাদের কর্মসূচির উদ্ভোধন করেছি আজ।  আগামিতে ও আমাদের এই  ধারা অব্যাহত থাকবে।  এসময় রোটারী ক্লাব অব বান্দরবানের সভাপতি রোটারিয়ান কাজল কান্তি দাশ বলেন, আমরা এই বিদ্যালয়ে মিশ্র ফলের চারা রোপণ করেছি। 

তিনি আরো বলেন,বৃক্ষ মানুষের শুধু বন্ধুই নয়,জীবন-জীবিকার অবিচ্ছেদ্য অংশও।  পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা থেকে শুরু করে  জীবন ধারণের  উপকরণ সরবরাহ পর্যন্ত  প্রতিটি ক্ষেত্রে বৃক্ষ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।  এসময় উপস্থিত স্থানীয়রা রোটারী ক্লাব অব বান্দরবানে এই কার্যক্রম কে স্বাগত জানান।  নানা উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের মাধ্যমে ব্যাপক সফলতা সম্ভব বলে মনে করেন অতিথিরা। 

অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দরা রোটারী ক্লাবের নানা কর্মকান্ড সকলের সামনে তুলে ধরেন এবং রোটারী ক্লাবকে অরো শক্তিশালি করার জন্য সকলের কাছ থেকে আন্তরিক ও সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।