৭:০৫ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৮, সোমবার | | ৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


বান্দরবানে ৯ আগস্ট আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস

০৮ আগস্ট ২০১৮, ০৩:৩৬ পিএম | জাহিদ


রিমন পালিত, বান্দরবান প্রতিনিধি : ৯ আগষ্ট আর্ন্তজাতিক আদিবাসী দিবস।  বাঙালি ছাড়াও বাংলাদেশে রয়েছে প্রায় ৪৫টিরও বেশি আদিবাসি।  বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আদিবাসিদের অধিকার সুরক্ষার জন্য ৯ আগষ্টকে আদিবাসি দিবস ঘোষণা করেছে জাতিসংঘ। 

আদিবাসীদের অধিকার আর জীবনমান রক্ষার পাশাপাশি সাংবিধানিকভাবে আদিবাসি হিসেবে স্বীকৃতি পেতে এখন ও সংগ্রাম করে যাচ্ছে পার্বত্য এলাকার বাসিন্দারা।  বান্দরবান থেকে রিমন পালিত এর পাঠানো তথ্য চিত্রে ডেস্ক রিপোর্ট। 


ঔপনিবেশিক সময়ে শতাব্দিকাল ধরে বৈষম্য-নীপিড়ণ ও জাতিগত আগ্রাসনে ৭০টি দেশে প্রায় ৪০কোটি আদিবাসির জীবন বিপন্ন হয়ে পড়ে।  বিলুপ্ত হয়ে যায় কোনো কোনো আদিবাসির অস্তিত্ব।  এই কারণে আদিবাসিদের সুরক্ষার জন্য জাতিসংঘ ১৯৯৩ সালে আদিবাসি বর্ষ ও ১৯৯৪ সালে ৯ আগস্টকে আন্তর্জাতিক আদিবাসি দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। 

শুধু তাই নয়, আদিবাসিদের অধিকার সংরক্ষন ও উন্নয়ন অংশীদারিত্বে নিয়ে আসার জন্য ১৯৯৫-২০০৪ সালকে প্রথম আদিবাসি দশক ও ২০০৫-২০১৪ সালকে দ্বিতীয় আদিবাসি দশক ঘোষণা করা হয়েছে।  পাশাপাশি জাতিসংঘ আদিবাসি জনগোষ্ঠীর অধিকার বিষয়ক ঘোষণাপত্রও প্রণয়ন করেছে। 


কিন্তু সমতলসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসিদের এখনো মেলেনি সাংবিধানিক স্বীকৃতি অন্যদিকে আদিবাসী জনগণকে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী বলা হয়েছে আর এতে পাহাড়ে বসবাসরত আদিবাসিদের মধ্যে এখনো বিরাজ করছে উদ্বেগ আর আতংক। 

এদিকে আদিবাসীদের স্বার্থ রক্ষায় আর সাংবিধানিকভাবে পার্বত্য এলাকায় বসবাসরত জনগোষ্টিকে আদিবাসী হিসেবে আখ্যায়িত করার জন্য প্রতিবছরের মত এবার ও বান্দরবানে বর্ণাঢ্য আয়োজনে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস পালন করার কথা জানালেন এই আদিবাসী নেতা। 


এই বিষয়ে আন্তজাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন পরিষদ ২০১৮ এর  সদস্য সচিব অং জাই উই চাক বলেন পার্বত্য এলাকায় বসবাসরত আদিবাসী জনগোষ্টির প্রত্যাশা সাংবিধানিকভাবে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টি শব্দটি বাদ দিয়ে আদিবাসি হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হবে এই জনগোষ্টিকে, আর এতেই আদিবাসিদের জীবনমানের উন্নয়ন ঘটবে।