২:৫৮ পিএম, ১৮ জুলাই ২০১৮, বুধবার | | ৫ জ্বিলকদ ১৪৩৯


বিপ্লবী মাস্টার দা সূর্য সেনের ৮৪তম আত্মাহুতি দিবসে আ.লীগের শ্রদ্ধা

১৩ জানুয়ারী ২০১৮, ১০:৫৪ এএম | জাহিদ


প্রদীপ শীল, রাউজান প্রতিনিধি : ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রাতঃস্মরণীয় বিপ্লবী ‘মাস্টার দা সূর্য সেনের’ ৮৪তম আত্মাহুতি দিবসে রাউজানে মাস্টার দা সূর্যসেনের মূর্তিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করেছে রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও এর অঙ্গ সংগঠন। 

শুক্রবার সকালে রাউজান উপজেলা সদর মুন্সিরঘাটাস্থ মূর্তিতে রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি’র নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা পুষ্পস্তবক অর্পন করেন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল, রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম হোসেন রেজা, রাউজান থানার ওসি কেপায়েত উল্লাহ, রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফৌজিয়া খানম মিনা, রাউজান পৌরসভার প্যানেল মেয়র (১) আলহাজ্ব বশির উদ্দিন খান, প্যানেল মেয়র (২) জমির উদ্দিন পারভেজ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম, বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, আহসান হাবীব চৌধুরী হাসান, সারজু মো. নাছের, তপন দে, নজরুল ইসলাম, কাউন্সিলর জানে আলম জনি, যুবলীগ নেতা আবু ছালেখ, জিল্লুর রহমান মাসুদ, ইমরান হোসেন ইমু, প্রমূখ। 

প্রসঙ্গত, ১৯৩৪ সালের ১২ জানুয়ারি গভীর রাতে বিপ্লবী মাস্টার দা সূর্যসেনকে ফাঁসির মঞ্চে ডেকে তোলা হয়।  তিনি উচ্চ কন্ঠে ‘বন্দে মাতরম’ স্লোগান তোলেন।  ব্রিটিশ পুলিশ তাঁর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে।  পিটিয়ে সূর্যসেনকে সংজ্ঞাহীন করা হয়।  এরপর নিথরদেহ ফাঁসিতে ঝুলানো হয়। 

এতেই ক্ষ্যান্ত হয়নি বৃটিশ শাসকগোষ্ঠী।  তাঁর লাশ পথরে বেঁধে জাহাজে করে চট্টগ্রাম থেকে ২০০ নটিক্যাল মাইল দূরে সাগরে নিক্ষেপ করা হয়।  ব্রিটিশরা জীবিত সূর্যসেনকে যতটা ভয় পেত, তার চেয়ে মৃত সূর্যসেনকে বেশি ভয় পেয়েছিল।