১০:০০ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, শুক্রবার | | ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০




বিমানে ভিক্ষাবৃত্তি

২১ জুন ২০১৮, ১২:৪৮ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : রাস্তার আনাচে-কানাচে বা সড়কপথের কিছু যানবাহনে সচরাচর দেখা যায় ভিক্ষাবৃত্তি।  কিন্তু প্লেনে এমন কাণ্ড, সত্যিই অবাক করার।  আর তাই ঘটল কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে। 

এক মধ্য বয়সী ব্যক্তি।  হঠাৎ প্লাস্টিকের একটি ছোট্ট ব্যাগ হাতে নিয়ে প্লেনের উপত্যকায় দাঁড়িয়ে যাত্রীদের কাছে ভিক্ষা চাওয়া শুরু করেন।  সেইসঙ্গে তাকে সহায়তা করার জন্য কাতর হয়ে তিনি অনুরোধও জানান বার বার।  তাতে যাত্রীদের মধ্যে অনেকে তাকে টাকা দিয়ে সাহায্যও করেছেন বলে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া এর ভিডিওটিতে দেখা যায়। 

এ উদ্ভট ঘটনাটি কাতারের রাজধানী দোহা থেকে ইরানের শিরাজ শহরের উদ্দেশে উড্ডয়ন করা কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে।  কিন্তু এক মিনিটের বেশি সময় তাকে ভিক্ষা করতে দেওয়া হয়নি, থামিয়ে দেওয়া হয়। 

প্লেন করিডোরে এক ব্যক্তি হেঁটে হেঁটে প্লাস্টিক ব্যাগ ধরে যাত্রীদের অনুনয় করছেন দেখে এগিয়ে আসেন প্লেনের এক নারী স্টাফ।  ভিক্ষুক কে উদ্দেশ্য করে বলেন,স্যার, দয়া করে আপনার সিটে বসেন।  আমি আপনার সমস্যা বুঝতে পেরেছি।  কিন্তু এখানে ভিক্ষা করা যাবে না। 

পরে এ ঘটনার ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।  আর মুহূর্তেই ২৫ হাজারেরও বেশি মানুষের নজরে আসে এটি।  তবে ওই ব্যক্তিকে চিনতে পারেননি কেউ।  সবার ধারণা, তিনি ইরানের নাগরিক হতে পারেন।  আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমেও এমনি প্রকাশ পেয়েছে। 

ভিডিওতে দেখা যায়, দুই যাত্রী তার ব্যাগে টাকা দিয়েছেন।  আরও কয়েকজন টাকা হাতে নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন, তাদের কাছে গেলেই টাকা দেবেন বলে।  কিন্তু এর আগেই তাকে থামিয়ে দিলেন এক নারীসহ প্লেনের কয়েকজন স্টাফ এসে।  তবে ওই ব্যক্তি থামতেই চাচ্ছিলেন না। ভিক্ষা করছেন মধ্য বয়সী এক ব্যক্তি। এদিকে, ভিডিওটি দেখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা রসাত্মক মন্তব্যও করেছেন অনেকে।  কেউ জিজ্ঞেস করেছেন, ওই ব্যক্তি টিকিট বিল পরিশোধ করে প্লেনে উঠেছেন কি না?

আল অমিত যাদব নামে একজন জিজ্ঞেস করেছেন, তার টিকিট কিনেছে কে? এটা ভালো, মানুষ টাকাও দিচ্ছে। 

লার্সেন দে সুজা নামে একজন বলেছেন, এটা একটি কৌতুক।  কিভাবে তিনি ফ্লাইটের ব্যবস্থা করলেন?

মারিয়া রেবেলো নামে একজন বাস, ট্রেনে বা অন্য কোথাও ভিক্ষা করা উচিত নয় বলে মন্তব্য করেছেন। 

দোহা এবং শিরাজে কাতার এয়ারওয়েজের একতরফা ফ্লাইটে সবচেয়ে সাধারণ সিটে খরচ হয় প্রায় ৪০০ পাউন্ড।  আর এ খরচ পরিশোধ করেই ওই ব্যক্তি প্লেনে উঠেছেন বলে নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ। 



keya