৪:৩৮ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, রোববার | | ৭ রবিউস সানি ১৪৪০




ব্যারিস্টার ইসমাইল ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট এর যাত্রা শুরু

১০ আগস্ট ২০১৮, ০৮:০৮ পিএম | মাসুম


এসএনএন২৪.কম :  শুক্রবার ১০ই আগষ্ট বিকাল ৩টায় মুনির নগর ওয়ার্ডের মুন্সি পাড়ায় শিক্ষা বিস্তারে অন্যন্য অবদান রাখা মহত ব্যক্তি ব্যারিষ্টার ইসমাইলকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরা এবং শিক্ষা বিস্তারের ক্ষেত্রে তার পরিবার এলাকাবাসীকে সহযোগিতা দিতে ব্যারিষ্টার ইসমাইলের স্ত্রী ও পুত্র সন্তানদের যৌথ উদ্যোগে শিক্ষা বৃত্তিসহ বিভিন্ন কার্যক্রমকে প্রতিষ্ঠানিক রূপ দিতে গঠন করা হয়েছে ব্যারিষ্টার ইসমাঈল ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট। 

সেই মান্দ্রিক্ষণে এ ট্রাষ্টের শুভ উদ্বোধন করেন তার সুযোগ্য স্ত্রী ও পুত্রসহ এলাকাবাসী। 

তারই হাতে গড়া বিদ্যালয় প্রি-ক্যাডেট স্কুল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ৩৭নং মুনির নগর ওয়ার্ড এর কাউন্সিলর মো: শফিউল আলম। 

প্রধান অতিথি ছিলেন ব্যারিষ্টার ইসমাইলের সহধর্মীনী লুৎফুন নাহার বেগম। 

বক্তব্য রাখেন তারই সুযোগ্য সন্তান ডাক্তার তারিকুল ওমর ইসমাইল, ওমর কৈয়ম ইসমাইল, নুর উদ্দিন ইবনে রফিক, ডা: খাস্তগীর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক শাহনাজ আক্তার, বিশিষ্ট সমাজ সেবক আবদুল্লাহ আল নোমান, জরিনা মফজল ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বাবু বিজয় চন্দ্র নাথ প্রমুখ। 

অনুষ্ঠানে পরিচালনা করেন এডভোকেট মোহাম্মদ মোরশেদ ও জাহেদ হোসেন। 

বক্তারা বলেন, ব্যারিষ্টার ইসমাইল হাজার প্রতিবন্ধকতাকে উপেক্ষা করে নিজেকে গড়েছেন সোনার মানুষ রুপে।  শুধু নিজে গড়েছেন তা নয় তিনি এলাকাকেও সোনারমত করে গড়ে তোলার জন্য আমৃত্যু চেষ্টা করে গেছেন।  মুন্সি পাড়া নয় পুরো ওয়ার্ডের মানুষের কল্যাণ নিবেদিত প্রাণ ব্যারিষ্টার ইসমাইল দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশেও নানা অবদান রেখে গেছেন।  তার সন্তানরা আজ দেশ বিদেশে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছেন।  তিনি তার সন্তানদের শুধু মানুষ করেছেন তা নয় তিনি এলাকার অবহেলিত-বঞ্চিত মানুষদের শিক্ষিত করে গড়ে তোলেছেন। 

সভাপতির বক্তব্যে কাউন্সিলর শফিউল আলম বলেন, মুন্সি পাড়াসহ মুনির নগর ওয়ার্ডের উন্নয়ন অগ্রগতি, শিক্ষা বিস্তারে ব্যারিস্টার ইসমাইল, কাউন্সিল আলহাজ্ব জাকারিয়া, রফিক আহমদসহ যারা অবদান রেখে গেছেন তাদের আজ স্মরণ করার সময় এসেছে।  তাদের নেতৃত্ব ও উন্নয়ন এবং সমাজ সেবার ধারাকে অব্যাহত রাখার জন্য যোগ্য নেতৃত্ব তৈরী করতে হবে। 

তিনি এলাকার উন্নয়নের সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। 



keya