৭:৪৬ এএম, ১৯ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার | | ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০




ব্যস্ত সময় পাড় করচ্ছে মুন্সীগঞ্জের ক্ষুদে গার্মেন্টস শিল্প

১৫ মে ২০১৯, ০৫:৩৩ পিএম | জাহিদ


শুভ ঘোষ, মুন্সীগঞ্জ : ঈদ-কে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পাড় করে চলেছে মুন্সীগঞ্জের হাজারো ক্ষুদে গার্মেন্টস শিল্প কারখানার পোশাক শ্রমিকরা।  জেলার সদর উপজেলার রামপাল, পঞ্চসার ও বজ্রযোগীনি সহ আরো বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের গড়ে উঠা শত শত ক্ষুদে এসব পোশাক কারখানা পূরণ করে চলেছে দেশের নিম্ন আয়ের লাখ মানুষের পোশাক চাহিদা।  তার পাশাপাশি ক্ষুদে এসব শিল্প কারখানার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে দেশের অধিকঅংশ বেকার যুব সমাজের বেকারত্ব দূর হতে কর্মস্থান তৈরীতে। 

ধনী হোক কিংবা গরিব সবাই এখন ঈদ মুখী, ঈদে প্রিয়জনের মুখে হাসি ফোটাতে সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষের মূল লক্ষ্য এখন সল্প মূল্যের পোশাক কেনাকাটায়।  যার অধিকঅংশই যোগান দিয়ে থাকে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে থাকা এসব ক্ষুদে পোশাক শিল্প কারখানা গুলো।   মূলত ঈদ কে কেন্দ্র করে এসব কারখানার শ্রমিকদের ব্যস্ততা বেরে যায় কয়েক গুণ।  তবে উদ্যোক্তাদের অভিযোগ ভারতীয় পণ্য বাজারে আসায় এসব ক্ষুদে গার্মেন্টস এর তৈরী পোশাকের নেয্যমূল্য না পেয়ে ব্যাপক ভাবে ক্ষতি গ্রস্থ হচ্ছে ব্যবসায়ীরা। 

এ ছাড়াও ভারতীয় পন্যের প্রভাব কমানো না গেলে এ শিল্প টিকিয়ে রাখা কঠিন হয়ে পড়বে এমনটাই অভিযোগ কারখানা মালিকদের। 

এই শিল্পের কারনে যেমন তৈরী হচ্ছে লাখ বেকার কর্মস্থান তেমনি, এসব কারখানা কে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে শতাধিক পোশাক সম্পৃক্ত বিভিন্ন পণ্যের দোকান ও।  এছাড়া ঈদর সময় ছাড়া বছরের অন্যান্য সময় এসব কারখানার তৈরী পোশাক দেশের বিভিন্ন স্থানের পাশাপাশি যাচ্ছে বিদেশেও। 

এ সব প্রসঙ্গে বিসিক শিল্প কারখানার কর্মকর্তা মো: আব্দুল্লাহ জানান, বাংলাদেশের বিসিকের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প বিকাশে সব সময় কাজ করে থাকে মুন্সীগঞ্জে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ক্ষুদ্র গার্মেন্টস শিল্প যারা কাজ করে থাকে তাদের বছরে ২ বার কাগজে কলমে প্রশিক্ষন দেয়া সহ

স্বল্প সুদে সফল ব্যক্তিদের বিসিকের নিজস্ব তহবিল থেকে দেয়া হচ্ছে রিন সুবিধা ও ।