৮:৪৫ এএম, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ২ রবিউস সানি ১৪৪০




বাংলাদেশের জয়ের লক্ষ্য ২১৫

১০ মার্চ ২০১৮, ১০:০৮ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : কুশল পেরেরা ও কুশল মেন্ডিসের জোড়া ফিফটির ওপর ভর করে শনিবার নিদাহাস ট্রফির তৃতীয় ম্যাচে চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়েছে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা।  নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শিষ্যরা সংগ্রহ করেছে ২১৪ রান।  এ ম্যাচে জিতলে হলে টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড রান তাড়া করতে হবে মাহমুদউল্লাহর বাংলাদেশকে। 

এদিন ভেজা কন্ডিশন বলেই হয়তো টস জিতে বোলিং বেছে নিলেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।  যদিও তার সিদ্ধান্তকে সঠিক প্রমাণ করতে পারেনি বাংলাদেশের বোলাররা।  ৬ উইকেটে শ্রীলঙ্কা তুলেছে ২১৪ রান।  এত রান তাড়া করে টি-টোয়েন্টিতে জেতার রেকর্ড নেই বাংলাদেশের।  ১৬৪ রানের বেশি লক্ষ্য কখনো সফলভাবে পেরোতে পারেনি বাংলাদেশ। 

বাংলাদেশ সর্বশেষ ১৪ টি-টোয়েন্টির ১৩টিতেই হেরেছে।  সর্বশেষ জয়টা এ মাঠে।  পরাজয়ের বৃত্ত ভাঙতে এটাই হতে পারে বাংলাদেশের প্রেরণা।  যদিও বাংলাদেশের বোলিং খুব একটা আশা জাগাল না।  ব্যাটসম্যানদের ওপরও ভরসা করা কি?

বাংলাদেশকে রানবৃষ্টিতে ভাসিয়ে দেয়ার পূর্বাভাস ৫৬ রানের উদ্বোধনী জুটিতেই দিয়েছিল শ্রীলঙ্কার।  মোস্তাফিজ উদ্বোধনী জুটি ভেঙেছিলেন গুণাথিলাকাকে বোল্ড করে।  যদিও দ্বিতীয় উইকেটে শ্রীলঙ্কা যোগ করে ৮৫ রান। 

কিছুতেই কাজ হচ্ছে না দেখে নিজের ভুলে যাওয়া বোলার পরিচয়টার কথা যেন মনে পড়ে যায় মাহমুদউল্লাহর।  সপ্তম বোলার হিসেবে আক্রমণে এসে এক ওভারে ২ উইকেট তুলে নেন অধিনায়ক।  কুশল মেন্ডিসকে (৩০ বলে ৫৭) ক্যাচ বানিয়েছেন সাব্বিরের।  দুই বলের মধ্যে আবারও সাব্বিরের ক্যাচ বানিয়েছেন শানাকাকে।  পরের ওভারে সাব্বিরের আরেকটি ক্যাচ।  দিনেশ চান্ডিমালের উইকেটটা তাসকিনের নামে লেখা হলেও পুরো কৃতিত্ব সাব্বিরের।  দারুণ ক্যাচ নিয়েছেন। 

শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে মোস্তাফিজকে খেলতে গিয়ে বল উপরে তুলে দেন কুশল পেরেরা।  উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহীমের ক্যাচ হয়ে ফেরেন ৪৮ বলে ৭৪ রান করা এই ব্যাটসম্যান। 

একই ওভারে এক বল পরই থিসারা পেরেরাকে শুন্য রানে নাজমুল অপুর ক্যাচ বানান মোস্তাফিজ।  উপুল থারাঙ্গা অপরাজিত ছিলেন ১৫ বলে ৩২ রানে।  বাংলাদেশের পক্ষে ৪৮ রানে ৩টি উইকেট পান মোস্তাফিজ।  এছাড়া দলনায়ক মাহমুদউল্লাহ ১৫ রানে ২টি ও তাসকিন নেন ১টি উইকেট। 



keya