১২:৫৬ এএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার | | ২৩ মুহররম ১৪৪১




বেশ কিছু পরিবর্তনের আভাস বাজেটে

৩০ জুন ২০১৯, ১০:২২ এএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম : নানান সমালোচনা ও বিতর্কের পর প্রস্তাবিত বাজেটে বেশ কিছু পরিবর্তন আসতে পারে। 

এমনই আভাস পাওয়া গেছে অর্থ মন্ত্রণালয় ও এনবিআরের বিভিন্ন সুত্র থেকে।  ব্যবসায়ী ও শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা পরিবর্তনের জন্য সরকারের সাথে শেষ মুহুর্তের আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

ব্যবসায়ীরা জানান, পরিবর্তন না হলে ব্যবসা সহজীকরণে আরো পিছিয়ে যাবে দেশ, কমবে বিনিয়োগ।  আর বিশ্লেষকরা এ পরিবর্তনকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন। 

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল প্রায় সোয়া ৫ লাখ কোটি টাকার বাজেট সংসদে উপস্থাপনের পর থেকেই শুরু হয় নানা মহলে আলোচনা-সমালোচনা।  ব্যবসায়ী ও বিশ্লেষক মহল একে সাধুবাদ জানালেও কর-ভ্যাট নিয়ে বেশ অস্বস্তি তৈরী হয়েছে। 

এরই মধ্যে ব্যবসায়ীরা সরকারের সাথে দেন দরবার করেছেন।  সভা সেমিনারেও দাবি জানিয়েছে যাচ্ছেন। 

সরকারও বেশ কিছু বিষয়ে সংশোধনী আনতে ইতিবাচক মনোভাব পোষন করেছেন। 

সুত্র জানায়, ক্যাপিটাল মেশিনারিজ আমদানিতে ৫ শতাংশ অগ্রিম শুল্ক আরোপ করা হয়েছে।  ব্যবসায়ীরা তা পরিবর্তনের জন্য বেশ জোরালো অবস্থান নিয়েছেন। 

সেই সাথে রড়-সিমেন্টের ওপর আমদানি পর্যায়ে ১৫ শতাংশ অগ্রিম আয়কর, বিদ্যুৎ সংযোগে টিআইএনের বাধ্যবাধকতা, মোবাইল ফোন ব্যবহারে অতিরিক্ত করারোপ বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা করেন ব্যবসায়ীরাও। 

এছাড়া স্মার্টফোনের ওপর করারোপ দেশের মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সংখ্যায় প্রভাবের পাশাপাশি নতুন বিনিয়োগেও নিরুৎসাহিত হবেন ব্যবসায়ীরা এমনটাই জানান পিআরআই-এর নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর। 

সঞ্চয়পত্রের সুদ হার ও পুঁজিবাজারের কর আরোপ থেকে সরে আসার আহবান ব্যবসায়ীদের।  আর ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের কথা চিন্তা করে অনলাইনে কেনাবেচার ওপর ভ্যাট কমানোর আহবানও এফবিসিসিআই-এর সাবেক সহ সভাপতি দেওয়ান সুলতান আহমেদের। 

এ ব্যপারে এনবিআরের কর্মকর্তারা ক্যামেরার সামনে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।  তবে সংস্থাটির একটি সুত্র জানায়, বিষয়গুলো তারা পর্যলোচনা করেছেন এবং ব্যবসা ও বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরির স্বার্থে যতোটা পারা যায় বিষয়গুলো ইতিবাচক ভাবে দেখার চেষ্টা করছেন। 


keya