৯:০০ পিএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার | | ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

সমাজতত্ত্ব বিভাগের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চ.বি. উপাচার্য

বাস্তবজীবনে মেধা, প্রজ্ঞার স্বাক্ষর রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম-মর্যাদা বৃদ্ধির আহবান

২৯ নভেম্বর ২০১৭, ০৫:৫২ পিএম | মুন্না


এসএনএন২৪.কম : ২৮ নভেম্বর ২০১৭ তারিখ বেলা ১১:৩০ টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সমাজতত্ত্ব বিভাগের বিদায় সংবর্ধনা ২০১৬ চ.বি. সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। 

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।  এতে বিশেষ অতিথির ভাষণ দেন চ.বি. মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার ও সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহামেদ। 

উপাচার্য তাঁর ভাষণে উপস্থিত সমাজতত্ত্ব বিভাগের সম্মানিত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের স্বাগত ও আন্তরিক অভিনন্দন জানান।  তিনি বলেন, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের অন্তর্গত সমাজতত্ত্ব একটি সমৃদ্ধ বিভাগ।  শুরু থেকে অনেক জ্ঞানী-গুণী, প্রজ্ঞাবান শিক্ষকের পদচারণায় এ বিভাগ মুখরিত ছিল।  তাঁরা তাঁদের নিজস্ব আলোয় এ বিভাগকে সমৃদ্ধ ও আলোকিত করেছে। 

এ গুণী শিক্ষকদের রচিত পুস্তকসমূহ আজ বিশ্বের অনেক উন্নত বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভূক্ত।  উপাচার্য বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সার্বিক অর্থে বিদায়ীরা অত্যন্ত সৌভাগ্যবান।  কারণ তারা অত্যন্ত মেধাবী ও প্রজ্ঞাবান শিক্ষদের সান্নিধ্যে থেকে তাদের শিক্ষাজীবন শেষ করতে পেরেছে। 

তিনি বলেন, শিক্ষা-গবেষণায় এ বিভাগ অনেকদূর এগিয়ে গেছে।  এর ধারাবাহিকতা রক্ষায় বাস্তবজীবনে আমাদের শিক্ষার্থীদের অধিকতর কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।  তাহলেই তারা সাফল্যের আলো দেখতে পাবে।  মাননীয় উপাচার্য বলেন, বিদায়ী শিক্ষার্থীরা কর্মজীবনে বিশ্ববিদ্যালয় হতে অর্জিত জ্ঞান, মেধা ও প্রজ্ঞার স্বাক্ষর রেখে সমাজতত্ত¡ বিভাগ তথা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলতর করবে এটাই প্রত্যাশিত।  তিনি বিদায়ীদের সফল কর্মময় জীবন প্রত্যাশা করেন।  

উপ-উপাচার্য বিদায়ী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানান।  তিনি বলেন, আগমন যেমন আনন্দের, তেমনি বিদায় বড় কষ্টের।  তারপরেও প্রত্যেককেই এ বিদায় মেনে নিতে হবে।  মাননীয় উপ-উপাচার্য বিদায়ীদের আত্মবিশ্বাস ও আত্মপ্রত্যয়ী হয়ে বাস্তবজীবনে যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার আহবান জানান।  তিনি বিদায়ীদেরকে আবেগের বশবর্তী না হয়ে নিজস্ব চিন্তা-চেতনার প্রতিফলন ঘটিয়ে বাস্তবজীবনে নিজেদের পরিচালনা করার আহবান জানান।  

চ.বি. সমাজতত্ত্ব বিভাগের সভাপতি প্রফেসর এস.এম. মনিরুল হাসানের সভাপতিত্বে ও উক্ত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ মহিউদ্দীনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উক্ত  বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন বিভাগের প্রফেসর ড. ওবায়দুল করিম, প্রফেসর ড. ইন্দ্রজিৎ কুন্ডু ও উক্ত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এবং অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির আহবায়ক জনাব মো. লিয়াকত আলী।  শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রেজাউল করিম, আহসান হাবিব, সাইফুল ইসলাম ও সানজিদা হক নিশি।  সবশেষে শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। 

Abu-Dhabi


21-February

keya