১০:৪১ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৮, শনিবার | | ৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


ভূরুঙ্গামারী সীমান্তে ১৯ বাংলাদেশীকে আটক

১০ আগস্ট ২০১৮, ০৫:৪৮ পিএম | মাসুম


হুমায়ুন কবির সূর্য্য, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার পাথরডুবি ইউনিয়নের মইদাম সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় ১৯ বাংলাদেশীকে আটক করেছে বিজিবি।  আটককৃতদের মধ্যে ৬নারী ও ২জন শিশু রয়েছে। 

বিজিবি জানায়, আটককৃতরা ১০ বছর ধরে ভারতের হরিয়ানা রাজ্যে ইটভাটায় কাজ করে আসছিল বলে জানায়। 

এরা প্রকৃত বাংলাদেশী নাগরিক কিনা যাচাই-বাছাই চলছে।  আটককৃতরা হলেন, ফুলবাড়ী উপজেলার মনছের আলী (৩০), আর্জিনা (২৮),মমেনা খাতুন (২৯), মাসুদ (১৪), সুমি (১৬), মুন্নী খাতুন (১৬) মোরসালিন (২), হযরত আলী (৪০), আলমগীর (২২), মজিবর ( ১৬), গোলেনুর (৩০), আর্নিকা (৬), কবির মামুদ (৩০), আব্দুল কুদ্দুস (২৫), জাকির হোসেন (১৯), আলম হোসেন (২৩) এবং নাগেশ্বরী উপজেলার মোকছেদুল (১৮) ও নবিয়া (৩০) এবং টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইলের আল-আমিন (১৮)। 

আটককৃতদের মধ্যে হযরত আলী জানান, প্রায় ১০ বছর থেকে ভারতের হরিয়ানায় তারা ইট ভাটায় কাজ করে আসছে।  ভারতে মুসলীম তাড়নার গুজব উঠায় বাংলাদেশে আসার উদ্যোগ নেয় তারা।  এজন্য ভারতের ফারুক ও আজিমুলের দারস্থ হয়।  এরা জন প্রতি ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা চুক্তির মাধ্যমে  শুক্রবার ভোরে ভারতের দিনহাটা সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের পাথরডুবি সীমান্তে ঢুকিয়ে দেয়। 

বাংলাদেশে আবুল ও জলিল নামে দু’ব্যক্তি তাদের আটকিয়ে ৮ হাজার টাকা নিয়ে ছেড়ে দেয় এবং বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আসার সময় পাথরডুবি বিজিবি তাদের আটক করে। 

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম ২২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে: কর্ণেল চৌধুরী সাইফ উদ্দিন কাউসার জানান, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে উপজেলার মইদাম সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় ১৯জনকে আটক করা হয়।  বিধি মোতাবেক ভারতে কোন অবৈধ বাংলাদেশী থাকলে তাদেরকে বিএসএফ- বিজিবি বৈঠকের মাধ্যমে হস্তান্তর করার কথা কিন্তু নিয়ম না মেনে অবৈধ দালালের মাধ্যমে তাদের বাংলাদেশে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। 

তিনি জানান, এরা প্রকৃত বাংলাদেশী নাগরিক কিনা যাচাই-বাছাই চলছে।  এরপর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিন্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

বিজিবি পাথরডুবি ক্যাম্প কমান্ডার নায়েক সুবেদার আশরাফ আলী জানান, আটকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।