৯:৪৯ এএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, রোববার | | ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০




ভালবাসা দিবসের আগেই প্রেমিকার ভাইয়ের হাতে স্কুল ছাত্র খুন: আটক ৪

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১২:৩৯ পিএম | সাদি


জাহিদ হোসাইন, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: ভালবাসা দিবসের আগের রাতে প্রেমিকার ভাইয়ের হাতে নির্মমভাবে খুন হলো স্কুল ছাত্র।  আহত হয়েছেন আরো ১ জন।  এ ঘটনায় ৪ জনকে আটক করেছে সাতক্ষীরা পুলিশ।  মঙ্গলবার রাতে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।  মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে সাতক্ষীরা শহরতলীর বকচরা এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। 

নিহতের নাম নাজমুল হোসেন সাকিব(১৭)।  সে সাতক্ষীরা পুলিশ লাইনস স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্র ও পুলিশ কনেস্টবল নজরুল ইসলামের ছেলে।  আহতের নাম রাশেদ।  সে শহরের রসুলপুর গ্রামের সাবেক পুলিশ সদস্য আব্দুল আজিজের ছেলে। 

পুলিশ ও অন্যান্য সূত্র জানায়, সাকিব হোসেন, রাশেদ ও অমি পুলিশ লাইনস স্কুলের ১০ম শেনির ছাত্র।  তারা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বকচরা মাদ্রাসায় মাহফিল শুনতে যায়।  সেখানে যেয়ে কামালনগর কলোনির আব্দুল কাদের ও একই এলাকার শান্ত’র সঙ্গে প্রেম সংক্রান্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাদের কথা কাটাকাটি হয়।  বিষয়টি সেখানেই নিষ্পত্তির পর মাহফিল শুনে তারা বাড়ি ফেরার পথে বকচরা এলাকায় পৌঁছানো মাত্র কাদের ও শান্তসহ তাদের কয়েকজন সঙ্গী সাকিব, রাশেদ ও অমির উপর হামলা করে।  এ সময় গাছের ডাল দিয়ে তাদের এলোপাতাড়ি পিটানো হয়।  সাকিব ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়ে।  আহত হয় রাশেদ।  দৌড়ে পালিয়ে প্রাণে রক্ষা অমি।  পরে স্থানীয়রা গুরুতর জখম অবস্থায় সাকিব ও রাশেদকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন। 

এ বিষয় ঘটনায় নিহতের চাচাতো বোন জেসমিন আক্তার (২৫) বলেন , সে যে মেয়েটি ভালবাসতো তার ভাই তাকে হত্যা করেছে । 

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মারুফ আহমেদ বলেন, মঙ্গলবার রাত ৯টার সময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মারামারি হয় ।  একপর্যায়ে তার বন্ধুরা সাকিব কে লাঠি দিয়ে মারাত্বক ভাবে আহত করে ।  আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক সাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন।  আমরা সাথে সাথে ঘটণা স্থানে যেয়ে মামলার মূল আলামত উদ্ধার করেছি।   রাতে ৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।  এ বিষয়ে থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।