৮:২০ এএম, ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




মঠবাড়িয়ায় রাতের আঁধারে কলেজে হামলা \ আহত ১৬

০৩ নভেম্বর ২০১৯, ১১:১৩ এএম | নকিব


মুহাঃ দেলোয়ার হোসাইন, পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় শুক্রবার রাতে উপজেলায় তুষখালী কলেজ ক্যাম্পাসে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে সন্ত্রাসীরা। 

এতে উভয় পক্ষের ১৬ জন আহতে খবর পাওয়া গেছে।  ওই হামলায় গুরুতর আহত কলেজ নৈশ প্রহরী খায়রুল ইসলাম ফরাজী (২৯)কে রাতেই বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।  এছাড়া ইমরান (২২) ও রিফাত(২৪) নামের দুই যুবক মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন। 

অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেয়া হয়।  

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাত নয়টার দিকে পিরোজপুর থেকে ফুটবল খেলা দেখে ফেরার পথে একদল দূর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র, লাঠি ও রড নিয়ে মঠবাড়িয়া উপজেলা তুষখালী কলেজে ঢুকে কলেজ মাঠে থাকা একটি বাস, একটি ট্রাক, একটি মোটরসাইকেল ও রাস্তার একটি মাহেন্দ্র গাড়ী, সিসি ক্যামেরাসহ বিভিন্ন স্থাপনা ভাংচুর করে।  এ সময় কলেজের দায়িত্তে¡ থাকা নৈশ প্রহরী খাইরুল ইসলাম ফরাজীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে হামলাকারীরা।  এসময় হামলায় উভয়পক্ষের ১৬জন আহত হয়।  গুরুতর আহত নৈশ প্রহরীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

তুষখালী কলেজের অধ্যক্ষ মো. আনোয়ার হোসেন জানান, তুষখালী কলেজটি এবার এমপিও ভুক্ত হয়েছে।  শুক্রবার বিকেলে পিরোজপুর জেলা স্টেডিয়ামে পুলিশ সুপার গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় অংশ নেয় মঠবাড়িয়া উপজেলা দল।  এ খেলায় পরাজিত হয়ে ফেরার পথে একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র, লাঠি ও রড নিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে হামলা চালিয়ে কলেজের সাইনবোর্ড, সিসি ক্যামেরা এবং অন্যান্য জিনিসপত্র ভাঙচুর করে চলে যায়। 

তুষখালী কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও ভান্ডারিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মিরাজুল ইসলাম জানান, মঠবাড়িয়া উপজেলার সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যানের লোকজন কলেজে হামলা চালিয়েছে।  এ হামলা পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে করা হয়েছে। 

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু জাফর মো. মাসুদুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় এখনও থানায় কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।  তবে কলেজের উপর হামলার ঘটনাটি অতি নিন্দনীয়।  এ ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক না কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এদিকে রাতের আধারে কলেজে হামলার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবীতে বিক্ষুব্দ শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা শনিবার সকালে মঠবাড়িয়া-চরখালী সড়ক অবরোধ করে মানববন্ধন করেন। 

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাসুদুজ্জামান জানান, তুষখালী কলেজে হামলার সাথে জড়িত সন্দেহে শনিবার সকালে মিলন মেম্বর নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।