৬:৫৪ পিএম, ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




মোরেলগঞ্জে জেলেদের জালে ধরা পড়লো খটক মাছ

১৫ জুন ২০১৯, ১০:০৯ এএম | নকিব


 এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট, প্রতিনিধি :  জারল ৩০ কেজি ওজনের একটি খটক মাছ (কড ফিস) বিক্রি হয়েছে।  শুক্রবার  প্রতিকেজি মাছ ২ হাজার টাকা কেজি দরে ৬০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছে ব্যবসায়ী শাহ আলম মাতুব্বর। 

খুলনার মৎস্য ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে তিনি ২৮ হাজার টাকায় মাছটি ক্রয় করি।  পরে কেটে ২ হাজার টাকা কেজি মূল্যে মোড়েলগঞ্জ বাজারে মাইকিং করে বিক্রি করে। 

মাছটির সাধারণত পাওয়া যায়না এবং ঔষধী গুন থাকার ধারনা নিয়ে এলাকার মানুষ বেশি দামে ক্রয় করেন।  আর এ মাছ এক নজর দেখার জন্য উৎসুক জনতার উপড়ে পড়ে।  

 এ মাছের মাথার সামনে খাঁজকাটা লম্বা করাতের মতো একটা কাটা আছে সে কারনে অনেকে এ মাছের নাম করাতি হাঙর বলে মনে করেন।  স্থানীয় জেলে ও মৎস্য ব্যবসায়ীদের ভাষায় খটক মাছও বলা হয়।  সচরাচর এ মাছ দেখা না গেলেও মাঝে মাঝে বিশালাকৃতির খটক মাছ ধরা পড়ে।  স্থানীয়রা বিশ্বাস করে খটক মাছ খেলে দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যানসার, হৃদরোগ ও যক্ষ্মা ভালো হয়।  এ বিশ্বাস থেকে জেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষ বেশি দামে মাছটি খাওয়ার জন্য ক্রয় করে। 

মৎস্য দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, করাতি হাঙ্গর বা খটক মাছ সমুদ্রের মাছ।  মাছটি অনেক বড় হয়।  সমুদ্রে মাছ ধরা জেলেদের জালে মাঝে মধ্যে এ মাছটি ধরা পড়ে। 

তবে সেটি লোকালয়ে বিক্রি হয় না।  জেলেদের জালে ধরা পড়লে স্থানীয় বাজারে বিক্রি হয়।