১:১৫ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০১৭, বুধবার | | ২৭ মুহররম ১৪৩৯

South Asian College

মৌলভীবাজারে গণজমায়েত ও বিক্ষোভ মিছিল

০৫ অক্টোবর ২০১৭, ০৫:১৪ পিএম | রাহুল


মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানদের নির্যাতনের প্রতিবাদে মৌলভীবাজারে গণজমায়েত ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে আঞ্জুমানে আল ইসলাহ ও তালামীযে ইসলামীয়া। 

আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে মৌলভীবাজার টাউন ঈদগায় অনুষ্ঠিত গণজমায়েতে আল ইসলাহর জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফিজ এনামুল হক ও জেলা তালামীযের সাধারণ সম্পাদক এম এ জলিলের যৌথ পরিচালনায় গণজমায়েতের সভাপতিত্ব করেন আল ইসলাহর জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা শামসুল ইসলাম। 

বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজ আলাউর রহমান টিপু, আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সদস্য সিরাজুল ইসলাম সিদ্দিকী,জেলা সিনিয়র সহ-সভাপতি শফিকুর রহমান,সহ-সভাপতি মকবুল হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা এম এ আলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ইউনুছ আলী, সদর উপজেলা সভাপতি মাওলানা মুক্তাদির হোসাইন,উলুয়াইল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা বশির আহমদ, দৈনিক মানবজমিনের স্টাফ রিপোর্টার মু. ইমাদ উদ দীন, দরগা জামে মসজিদের ইমাম হাফিজ মাওলানা মির্জা শামীম আহমদ, শহর আল ইসলাহর সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন, বড়লেখা উপজেলা আল ইসলাহর সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার নাজিম উদ্দিন, তালামীযে ইসলামীয়ার জেলা সভাপতি নিলুর রহমান প্রমুখ। 

অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বড়লেখা আল ইসলাহর সভাপতি মাওলানা আব্দুর রহমান, জুড়ী উপজেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুস শহীদ, কুলাউড়া উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবুল কালাম, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা বদরুল ইসলাম, পৌর সভাপতি মাওলানা আব্দুল ওয়াহিদ, পৌর সাধারণ সম্পাদক শিপলু বখশ, সাবেক পৌর সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আখই, কমলগঞ্জ উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহাব, শ্রীমঙ্গল সভাপতি মাওলানা মুজিবুর রহমান মাদানী, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা নাসির উদ্দিন,রাজনগর উপজেলা সভাপতি মাওলানা নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুস সালেহী,জেলা আল ইসলাহ নেতা মাওলানা এম এ গাফফার, সাবেক তালামীয নেতা জাকির আহমদ জবলু,জেলা তালামীয নেতা রাজন আহমদসহ আল ইসলাহ,তালামীয ও লতিফা ক্বারী সোসাইটির নেতৃবৃন্দ। 

বক্তারা মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর চলমান হত্যা,নির্যাতন, ধর্ষণ, সম্পদ লুন্টন ও তাদের বাস্তুহারা করে দেশ ছাড়া করার তীব্র প্রতিবাদ জানান।  বাংলাদেশে তাদের আশ্রয় ও সহযোগীতা অব্যাহত রাখায় সরকার,রাজনৈতিক দল ও নানা শ্রেণী পেশার মানুষকে অভিনন্দন জানান। 

সেই সাথে সরকারের প্রতি জোর দাবী জানান যাতে দ্রুত কুটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের তাদের নিজদেশে নিরাপদে ফিরতে পারে সেই ব্যবস্থা করে দেওয়ার।  আলোচনা শেষে শহরে একটি বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। 

মিছিলটি শহরের টাউন ঈদগাহ থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার টাউন ঈদগায় গিয়ে শেষ হয়।