১০:৪৭ এএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | | ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১




মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ছে ডায়াবেটিস-প্রয়োজন নিয়ন্ত্রণ

১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০১:১৫ পিএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম: বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস ১৪ নভেম্বর।  বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস রোগ ব্যাপক হারে বেড়ে যাওয়ায়, বিশ্ব ডায়াবেটিস ফেডারেশন (আইডিএফ) ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৯৯১ সাল-এ ১৪ নভেম্বরকে ডায়াবেটিস দিবস হিসেবে ঘোষণা করে।  

এদিন বিজ্ঞানী ফ্রেডরিক বেনটিং জন্ম নিয়েছিলেন এবং তিনি বিজ্ঞানী চার্লস বেস্টের সঙ্গে যৌথভাবে ইনসুলিন আবিষ্কার করেছিলেন।  

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী বিশ্বের প্রায় ৪২৫ মিলিয়ন মানুষ ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত এবং বাংলাদেশে এ সংখ্যা ৯০ লাখ।  জনসংখ্যার বিচারে বাংলাদেশ বর্তমান পৃথিবীর ১০তম ডায়াবেটিস আক্রান্ত দেশ।  

ডায়াবেটিসের চিকিৎসা যেহেতু ব্যয়বহুল সেজন্য প্রান্তিক পর্যায়ে ডায়াবেটিস চিকিৎসাহীনতা ভোগা রোগির সংখ্যা যেমন বাড়ছে তেমনি বাড়ছে ডায়াবটিসের কারণে আক্রান্ত অন্যন্য জটিলতা যেমন হৃদরোগ, কিডনি ফেইলিওরসহ নানা ধরনের শারীরিক জটিলতা।  

এছাড়া প্রতি বছর বাংলাদেশে প্রায় ১ লাখ করে মানুষ ডায়াবেটিস আক্রান্ত হচ্ছেন।  এমন অবস্থায় সচেতনতাই ডায়াবেটিস রোগ নিয়ন্ত্রণের অন্যতম উপায়।  

শহুরে জীবনযাপনে অভ্যস্ত একটি শিশু তার ছোটবেলা থেকেই ডায়াবেটিস ঝুঁকিতে বড় হতে থাকে।  খেলার মাঠ ও শারীরিক কসরতের জন্য পর্যাপ্ত মাঠ না থাকায় শহরের শিশুদের মধ্যে ডায়াবেটিস আক্রান্ত হবার ঝুঁকি বেশি।  এছাড়া ফাস্টফুড ও হাইক্যালরি ফুড গ্রহণও অন্যতম কারণ।  

যারা অফিসের চাকুরে তাদের অবস্থাও একই রকম।   তাই বলা চলে শারীরিক শ্রমবিহীন এক অসুস্থ ও ডায়াবেটিস আক্রান্ত প্রজন্ম আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে।  

ডায়াবেটিসের প্রাথমিক লক্ষণ, যেমন ঘন ঘন প্রস্রাব, অবসাদ লাগা, গলা শুকিয়ে আসা, বার বার ক্ষুধা লাগা, চোখে ঝাপসা দেখা এগুলো প্রকাশ পেলেই চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিত।  ডায়াবেটিস আক্রান্ত হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে।   সেই সঙ্গে পরিমিত আহার এবং নিয়ম করে ব্যায়াম ও হাঁটাহাঁটি করতে হবে।  

ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালের প্রকাশনা অনুসারে ভাত যাদের প্রধান খাদ্য তাদের ডায়াবেটিস আক্রান্তের ঝুঁকি বেশি।   আমাদের দেশের ঐতিহ্য অনুসারে ভাত, মিষ্টি ও মিষ্টি জাতীয় খাবারই বেশি খাওয়া হয়।  এতে করে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আনার ক্ষেত্রে একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়।  

আসুন ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে খাদ্যাভ্যাস, পরিশ্রম ও নিয়মিত ওষুধ গ্রহণে গুরুত্ব দেই।  মনে রাখবেন, মাথার চুল থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত প্রায় সকল অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ডায়াবেটিসের কারণে আক্রান্ত হয়।  তাই সময় থাকতে হতে হবে সচেতন।  

ডা. শরীফ মহিউদ্দিন 

বিশেষজ্ঞ ডায়াবেটিস চিকিৎসক ও গবেষক

আইচি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, জাপান