৫:২৯ এএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯, রোববার | | ২০ সফর ১৪৪১




মোড়েলগঞ্জে আ.লীগ ও যুবলীগ দুই নেতা হত্যার এক বছর ট্রাইবুনালে বিচারের দাবি

০১ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:৪৮ পিএম | নকিব


এম.পলাশ শরীফ,বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে প্রকাশ্য দিবালোকে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের দুই নেতাকে পিটিয়ে কুপিয়ে ও গুলিকরে হত্যার এক বছর পূর্তী আজ।  খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় দৈবজ্ঞহাটি এলাকায় আঞ্চলিক মহাসড়কে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন ক্ষুব্ধ এলাকাবাসি এ নৃশংস হত্যাকান্ডের দ্রæত ট্রাইবুনালে বিচারের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে।  

২০১৮ সালের ১লা অক্টোবর দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী দিহিদার(৪৫)ও ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি শুকুর শেখকে(৩৮) হত্যা করে দলীয় নেতা কর্মীরা।  একই সাথে পিটিয়ে দুই পা ভেঙ্গে দেওয়া হয় আনছার আলীর স্ত্রী মঞ্জু খানমের এবং যুবলীগ কর্মী বাবুল শেখের।  

নিহত আনছার আলীর স্ত্রী মঞ্জু খানম, পিতা নেছার আলী দিহিদার, মেয়ে ছাবরিনা আফরিন সুমি, ছেলে শাওন দিহিদার, নিহত শুকুর আলীর বড় ভাই ফারুক আহমেদ, ইউনিয়ন আ. লীগের সভাপতি কিছলুর রহমন খোকন, মুক্তিযোদ্ধা ওয়াদুদ শেখ, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান পারুল আক্তার,  ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আকন হাবিবুর রহমান, ইউপি সদস্য হায়দার আলী বেগসহ শতশত শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষ অংশ গ্রহন করেন।  

দলীয় কোন্দলের কারনে গেল বছর আ. লীগ দলীয় চেয়ারম্যান শহিদুল ফকিরের নেতৃত্বে এ জোড়া হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।  ওই দিনই থানা পুলিশ ঘটনাস্থল (ইউনিয়ন পরিষদ) থেকে শহিদুল ফকিরকে গ্রেফতার করে।  

এ ঘটনায় থানায় হত্যা ও অস্ত্র আইনে পৃথক পৃথক মামলা দায়ের করা হয়।  পৃথক ৩টি মামলা হয়।  পুলিশ মামলার প্রধান আসামি চেয়ারম্যান শহিদুল ফকিরসহ ৫৮জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে।