১:৫৬ এএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ১৮ মুহররম ১৪৪১




মোড়েলগঞ্জে জমি দখলের চেষ্টায় বীজতলা বিনষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা

২৪ আগস্ট ২০১৯, ১০:৫১ এএম | নকিব


এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের খাউলিয়া ইউনিয়নের ইউপি মেম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. মহিদুল ইসলাম ও তার চাচাতো ভাই মো. আসাদুজ্জামান হাওলাদারের জমি দখলের জন্য একটি প্রভাবশালী মহল মরিয়া উঠেছে। 

ফসলি জমি’র আমন বীজতলার তুলে ফেলে ৩৫ হাজার টাকার ক্ষতিস্বাধন করেছে দুর্বৃত্তরা। 

এ ঘটনায় ইউপি সদস্য মহিদুল ইসলাম বাদি হয়ে মোশারেফ ঘরামীকে প্রধান আসামী করে ১৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।  শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশ। 

প্রাপ্ত অভিযোগে জানাগেছে, বড়পরি গ্রামের সোহরাব হোসেন হাওলাদারের পুত্র ৫নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মহিদুল ইসলাম ও তার চাচাতো ভাই মো. আসাদুজ্জামান হাওলাদারের ১ একর ৪৬ শতক জমি ক্রয় সূত্রে মালিকানা দীর্ঘ ২৫/৩০ বছর ধরে শান্তিপ্রিয়ভাবে ভোগ দখল করে আসছে।  ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার সকালে একই গ্রামের মৃত. আশ্রাফ আলী ঘরামির পুত্র মোশারেফ হোসেন ঘরামি(৪০),  আব্দুর রহমান ঘরামি(৩০), ফোরকান হাওলাদার(৩২), ইসমাইল শিকদার (৩৮)সহ ২০/২৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল ইউপি মেম্বরের জমিতে অনাধিকার প্রবেশ করে জমি দখলের চেষ্টায় চালায়। 

এ সময় হামলাকারিরা ওই জমিতে চাষাবাদ করা রোপা আমনের বীজতলা উপরে ফেলে ৩৫ হাজার টাকার ক্ষতিস্বাধন করে এবং তাদের মারপিটে সাইদুর রহমান হাওলাদার (৬৫), আব্দুল জলিল হাওলাদার (৬৫) ও আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার (২৫) আহত হয়। 

হামলাকারিরা এ সময় তাদের কাছ থেকে নগদ টাকাও ছিনিয়ে নেয়।  এদিকে শুক্রবার সরেজমিনে ইউপি মেম্বরের পিতা আ.লীগ কর্মী সাবেক ইউপি মেম্বর সোহরাব হোসেন হাওলাদার(৬৫) ও তার ভাই সায়েদুর রহমান হাওলাদার(৫৮) বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগ করেও নিজেদের ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে শান্তিপ্রিয়ভাবে কি বসবাস করতে পারবো না।  আমাদেরকে হয়রানি করছে বলেও জানান তারা।   

আ.লীগ কর্মী এ পরিবার দু’টি প্রভাবশালীদের হয়রানীর হাত থেকে পরিত্রাণ পেতে উর্দ্ধতন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। 

এ সর্ম্পকে থানা অফিসার ইনচার্জ কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, ইউপি মেম্বরের অভিযোগ পেয়েছি।  ঘটনাস্থলে পুলিশ পরির্দশন করেছে।  উভয়কে শান্তি শৃংখলা রক্ষার্থে বলা হয়েছে।  বিরোধ পূর্ন জমি হলে আদালতের মাধ্যমে নিস্পত্তির করতে হবে।  


keya