৯:৩৫ পিএম, ২৩ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার | | ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এক হওয়ার ডাক

১৯ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:২১ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : আরব দেশগুলোর জন্য ইরানের সেনাবাহিনী হুমকি নয়।  ইরানের সেনাবাহিনী এ অঞ্চলের দেশগুলোর জাতীয় স্বার্থপরিপন্থী নয় বলে জানিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। 

এ সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বিশ্বকে এক হওয়ার আহ্বান জানান। 

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) দেশটির তেহরানে এক সামরিক দিবসের কুচকাওয়াজে যোগ দিয়ে তিনি এ আহ্বান জানান। 

এ সময় দেশটি সাম্প্রতিক সামরিক সরঞ্জামও প্রদর্শন করা হয়। 

কুচকাওয়াজের এ অনুষ্ঠান দেশটির টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।  সেখানে ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র, সাবমেরিন, সাঁজোয়া যান, রাডারসহ ইলেকট্রনিক যুদ্ধ ব্যবস্থার নানা সরঞ্জাম প্রদর্শন করা হয়। 

প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন, ‘এই অঞ্চলের দেশগুলোকে জানাতে চাই, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সশস্ত্র বাহিনী আপনাদের এবং আপনাদের জাতীয় স্বার্থপরিপন্থী নয়।  তারা কেবল বহির্বিশ্বের শত্রুদের মোকাবিলা করে।  আমাদের সব সমস্যার মূলে রয়েছে ইহুদি রাষ্ট্রপন্থী শাসন এবং আমেরিকান সাম্রাজ্যবাদ। ’

প্রসঙ্গত, ইরানের দুটি সেনাবাহিনী রয়েছে।  নিয়মিত বাহিনী জাতীয় প্রতিরক্ষার দিকগুলো দেখাশোনা করে।  আর ইরানের এলিট ফোর্স ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিপক্ষের হাত থেকে ইসলামি প্রজাতন্ত্র রক্ষার্থে গঠিত হয়।  ১৯৭৯ সালে ইরানি বিপ্লবের পর বিশেষায়িত এই সেনাবাহিনী গড়ে তোলা হয়। 

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে ইরানের সেনাবাহিনীর এলিট ফোর্স ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ডকে যুক্তরাষ্ট্র ‘বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করে।  পাল্টা ব্যবস্থা হিসাবে ইরান যুক্তরাষ্ট্রের সেনাকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসাবে চিহিৃত করে।