১০:৫৬ পিএম, ২১ জানুয়ারী ২০১৮, রোববার | | ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

যখন তখন দাঁতে ব্যাথার ঘরোয়া প্রতিকার

১৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:৩৭ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : সামান্য একটু চুইংগামের টুকরো, মাংসের টুকরো, ভাঙা দাঁতের বাড়তি অংশ এই সবকিছুই অসময়ে প্রচণ্ড দাঁতের ব্যাথা তৈরি করতে পারে।  ভাবুন তো এমন একটা সময়ের কথা, যখন আপনার দাঁতে প্রচণ্ড ব্যাথা হচ্ছে, অথচ আশেপাশে কোনো ডেন্টিস্ট নেই? তাহলে উপায়? চলুন আজ তাই জেনে নিই হুট করে উদয় হওয়া এই অহেতুক দাঁত ব্যাথার কিছু চটজলদি এবং ঘরোয়া প্রতিকার!

দারুচিনি চিবুতে থাকুন

খুব বেশি যদি দাঁত ব্যাথা করে থাকে তাহলে আপনাকে স্বস্তি দিতে পারে দারুচিনি।  এর মধ্যে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল আর ব্যাথা কমানোর গুণ আছে ভরপুর।  শুধু ব্যাথা কমানোই নয়, দারুচিনি আপনার দাঁতকে আরো মজবুত করে তোলে।  দারচিনি দাঁত আর মাড়ির জন্যও খুব উপকারী।  দাঁত ব্যাথা করলে একটা দারুচিনির টুকরো নিয়ে যে অংশে ব্যাথা হছে সেই অংশের উপর রাখুন।  হাল্কা করে চিবুতে থাকুন আর দারচিনি থেকে যে রসটা বেরোচ্ছে তা কিছুক্ষণ দাঁতের অংশে রেখে গিলে ফেলুন।  কিছুক্ষণের মধ্যেই দেখবেন ব্যাথা অনেকটা কমে আসছে। 

পেপারমিন্ট চা পান

দাঁতের ব্যাথা কমানোর জন্য পেপারমিন্টের চা বেশ কার্যকর উপাদান।  একটু পানি গরম করে তাতে পেপারমিন্টের পাতা ছেড়ে দিন।  তারপর জ্বাল দেওয়া হয়ে গেলে সেটি ছেঁকে বারবার কুলি করতে থাকুন।  একবার মুখের ভেতরে পানি নিন, তারপর গড়গড়া করে বাইরে ফেলে দিন।  এছাড়াও দাঁতের যেখানে ব্যাথা করছে সেখানে ভেজা পেপারমিন্টের ব্যাগ রেখেও ব্যাথা কমিয়ে ফেলতে পারেন আপনি। 

লবণ-পানিতে কুলি করা

খুব দাঁত ব্যাথা করছে? তাহলে খানিকটা পানি নিয়ে সেটাকে গরম করুন।  তারপর তাতে এক চা চামচ লবণ মিশিয়ে কুলি করে নিন।  একবার নয়, বারবার পানিটা দিয়ে কুলি করতে থাকুন।  এতে করে আপনার দাঁত ব্যাথার কারণটা হয়তো চলে যাবে না, তবে একটু সময়ের জন্যে হলেও ভয়ানক দাঁত ব্যথার কষ্ট কমে যাবে আপনার। 

বরফের ব্যবহার

দাঁতের যেই জায়গাটায় ব্যাথা হচ্ছে একটা বরফ নিয়ে একটুখানি ঘষুন।  প্রায় ১০-১৫ মিনিট ধরে ভালোভাবে বরফের টুকরো ধরে রাখুন ব্যাথাযুক্ত স্থানটিতে।  এতে করে ঠাণ্ডা আপনার ব্যাথাযুক্ত মাংসপেশীগুলোকে অবশ করে দেবে।  ব্যথা অনুভব করবেন না আপনি আগের মতন।  কিছুক্ষণের জন্য হলেও দাঁত ব্যাথা কমে যাবে আপনার। 

হাইড্রোজেন পারঅক্সাইডে কুলি করা

একটা ৩% হাইড্রোজেন পার অক্সাইড কিনে সবসময় নিজের সাথে রাখুন।  এটি খুব সহজেই আপনার মুখের ভেতরে থাকা ব্যাকটেরিয়াগুলোকে মেরে ফেলে আর মুখকে পরিষ্কার করে ব্যাথা কমিয়ে ফেলতে সাহায্য করবে।  এরজন্য খানিকটা হাইড্রোজেন পার অক্সাইডকে পানির সাথে মেশান আর কুলি করে ফেলুন।  অল্প সময়ের জন্যে হলেও স্বস্তি ফিরে পাবেন। 

লবঙ্গ তেলের ব্যবহার

মাংসপেশীকে অবশ করে দেওয়ার ক্ষেত্রে লবঙ্গ তেল খুব ভালো কাজ করে।  সাধারণত, লবঙ্গে ইউজেনল নামক একটি উপাদান থাকে যেটি এনেস্থেশিয়া হিসেবে ব্যবহার করা হয়।  তবে লবঙ্গ তেল ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটু সাবধান থাকবেন।  অনেক সময় দাঁতের গোড়ায় অন্য কোনো কারণে তৈরি হওয়া ব্যাথার জন্য লবঙ্গ তেল ব্যবহার করলে হিতে বিপরীত হতে পারে।  তাই লবঙ্গ তেল ব্যবহারের আগে নিশ্চিত হয়ে নিন যে ঠিক কেনো আপনার দাঁত ব্যাথা করছে। 

রসুন থেঁতলে ব্যবহার করুন

এক কোয়া রসুন নিয়ে সেটাকে থেঁতলে ফেলুন।  এরপর সেটা দাঁতের ব্যাথাযুক্ত স্থানটিতে লাগিয়ে রাখুন।  আরেকটু বেশি কার্যকর ফলাফলের জন্য সাথে খানিকটা লবণ মিশিয়ে দেখতে পারেন!

আপনি যদি চান দীর্ঘ সময়ের জন্য আপনার দাঁত ব্যাথা কমে যাক তাহলে নীচের কাজগুলো করুন:

মিষ্টি জিনিস খাওয়া কমিয়ে ফেলুন।  মাঝে মাঝে মিষ্টি খাওয়া যেতে পারে।  কিন্তু তাই বলে সবসময়ের জন্য নয়।  তাই মিষ্টি যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। 

ডেন্টিস্টের সাথে নিয়মত যোগাযোগ রাখুন।  চেক-আপ করুন।  বয়স বেড়ে গেলে নানারকম সমস্যা হতেই পারে দাঁতে।  তার অনেকগুলো হয়তো বয়সজনিত কারণেই।  তাই নিয়মিত পরীক্ষা করতে থাকুন। 

যে খাবারগুলো খেলে দাঁত ব্যাথা বেড়ে যায় সেগুলো এড়িয়ে চলুন।  খুব ঠাণ্ডা অথবা খুব গরম পানীয় পান করা থেকে বিরত থাকুন। 

৪।  নিজের ব্রাশটি প্রতি তিন মাস পরপর বদলে ফেলুন।  আর নিয়মিত ব্রাশ করুন।  আপনার দাঁত সুস্থ থাকবে। 

Abu-Dhabi


21-February

keya