২:০৯ এএম, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার | | ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার অভিযোগে নেতাকর্মীদের মাঝে চাপা ক্ষোভ

২৪ মে ২০১৯, ১০:৪৫ পিএম | জাহিদ


সাভার প্রতিনিধি : গাজীপুর কাশিমপুরে রাস্তার সংক্রান্ত বিরোধের জেরে  আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকারকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দেয়ার অভিযোগে নেতাকর্মীদের মাঝে এক প্রকার চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।  অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান নেতাকর্মীরা। 

ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক নূরুল আমীন সরকার জানান, থানা যুবলীগের আহবায়কের বিরুদ্ধে যে মামলা দেয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।  ঘটনার ঐদিন তিনি দূর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বিদেশে সফর শেষে দেশে ফিরেন এবং তাকে বিমান বন্দর থেকে রিসিভ করতে যান।  তাহলে তিনি  ঐদিন কিভাবে ঘটনার সাথে জড়িত ছিলো।  কবির সরকার সমাজে যে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড করছেন এক শ্রেণী কূচক্রীমহল ঈর্ষান্বিত হয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে নানাভাবে হয়রানি করছে।  এতে করে একদিকে এই যুবলীগ নেতার মান ক্ষুন্ন হচ্ছে অন্যদিকে দলের সুনাম নষ্ট হচ্ছে।  আমি ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।   

ধামসোনা ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ঈসমাইল হোসেন বকুল ভূইয়া জানান, আমার নেতাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে বিভিন্নভাবে হয়রানি করার চেষ্টা করে আসছে কূচক্রীমহল।  আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। 

শিমুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতাকর্মীরা জানায়, আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক কবির সরকার সৎ, বিনয়ী ও মিশুক স্বভাবে।   তিনি দলের দ্বায়িত্ব পাওয়ার পরে থানা যুবলীগ অনেক চাঙ্গা হয়েছে এবং সব সময় তৃণমূল নেতাকর্মীদের খোঁজ-খবর রাখছেন।  এছাড়াও তিনি মসজিদ, মাদ্রাসাসহ নানা উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে সক্রিয় ভূমিকা রাখছেন।  এই নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করা হচ্ছে।  আমরা এর প্রতিবাদ জানাচ্ছি।   

অন্যদিকে, পাথালিয়া ও আশুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ব্যক্তিগত আক্রোশে আমাদের নেতাকে হেয় করতে বিভিন্ন ভাবে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।  আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং সেই সাথে অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানাচ্ছি।     

আশুলিয়া থানা যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মঈনুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, কূচক্রীমহল আমাদেরকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্নভাবে আমাদেরকে হয়রানির পায়তারা করছে।  কোনদিক দিয়ে না পেরে মিথ্যা মামলা দিয়ে নানাভাবে হয়রানি করছে।  যারফলে এতেকরে ব্যক্তি ইমেজ নষ্ট হওয়াসহ দলের সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে।  

পরে এবিষয়ে জানার জন্য আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এঘটনা সম্পূর্ণ মিথ্যা।  রাস্তার স্ংক্রান্ত বিরোধের জেরে আমাকে ফাঁসাতে এই মামলা দেয়া হয়েছে।  ঘটনার দিন আমি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী সুইজারল্যান্ড থেকে দেশে ফিরেন নেতা কর্মীদের নিয়ে বিমানবন্দরে তাকে আনতে যাই।  তাহলে আমি ঘটনার সাথে কিভাবে জড়িত ছিলাম।  কূচক্রী মহল আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য আমার বিরুদ্ধে  এই মিথ্যা মামলা দিয়েছে।  আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। 

কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান বলেন, এমন একটি অভিয়োগ করা হয়েছে বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। 

উল্লেখ্যঃ গত বুধবার বিকেলে গাজীপুরের কাশিমপুর থানার বাগবাড়ী এলাকায় রাস্তা নির্মাণের জন্য বরাদ্ধকৃত জমির ওপরে বাঁশ হেলে পড়ে।  রাস্তা নির্মাণে সুবিধার জন্য স্থানীয় হাবিব সরকার ঐ বাঁশ কাটতে গেলে তাকে বাঁধা দেয় স্থানীয় আবিদ সরকার লিমন, সাইমন সরকার, আলম ও মামুন।  এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে এ নিয়ে বাকবিতন্ডতার সৃষ্টি হয়।   পরে দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনার জের ধরে ব্যক্তিগত আক্রশে বৃহস্পতিবার হাবিব সরকারের চাচাতো ভাই আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মো: কবির হোসেন সরকারকে জরিয়ে লিমন সরকার বাদি হয়ে কাশিমপুর থানায় একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে।  মামলার এজাহারে ৮জনের নামসহ মোট ১৮ জনকে আসামি করা হয়েছে।  


keya