১০:৫৪ এএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | | ৯ মুহররম ১৪৪০


যমুনা ডেনিমে বিদেশি ক্রেতারা আস্থা রাখছেন

১২ নভেম্বর ২০১৭, ০৮:০৬ এএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম: বিদেশি ক্রেতাদের আস্থায় পরিণত হচ্ছে যমুনা ডেনিম। এর অংশ হিসেবে শনিবার ইনডিটেক্সের স্বনামধন্য ব্র্যান্ড বাসকার নির্বাহী প্রধান মারকো এগনোলিনের নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠানটির উচ্চপর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল যমুনা ডেনিম ফ্যাক্টরি পরিদর্শন করেন। 

হযরত শাহজালাল (রহ.) বিমানবন্দরে অবতরণের পর হেলিকপ্টারে তারা ফ্যাক্টরি পরিদর্শনে যান।  এ সময় তাদের স্বাগত জানান যমুনা গ্রুপের পরিচালক রোজালিন ইসলাম। 

প্রতিনিধি দলটি প্রায় ২ ঘণ্টা ফ্যাক্টরি ঘুরে দেখে।  এ সময় তারা যমুনার ডেনিম টেক্সটাইল, গার্মেন্টস এবং ওয়াশিং প্ল্যান্ট ঘুরে দেখেন।  ডেনিমের ভার্টিকেল সেটআপ, কমপ্লায়েন্স ব্যবস্থা ও উন্নত আধুনিক মেশিনারিজ দেখে মুগ্ধ হন তারা। 

পরে এক ব্যবসায়িক আলোচনায় প্রতিনিধি দলের প্রধান মারকো এগনোলিন একটি আধুনিক ও প্রযুক্তিশীল প্রজেক্ট গড়ে তোলায় সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, শিপমেন্ট ও কোয়ালিটি বজায় রেখে যমুনা ডেনিম ২০১১ সাল থেকে ইনডিটেক্সের ডেনিম পোশাক রফতানি করছে।  সাম্প্রতিক সময়ে ডেনিম ফেব্রিক্স ও গার্মেন্টসের ডিজাইন আমাদের আকর্ষিত করেছে।  প্রতিষ্ঠানটির সার্বিক উৎপাদনশীলতায় আমরা সন্তুষ্ট।  এ কারণে ক্রয়াদেশ আরও বাড়িয়ে দেয়া হবে।  যমুনা ডেনিম এ ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে ভবিষ্যতে আরও নতুন নতুন বিদেশি ক্রেতা অর্ডার দিতে আসবে বলেন আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। 

এ সময় যমুনা গ্রুপের পরিচালক রোজালিন ইসলাম বলেন, কোয়ালিটি এবং সময়মতো শিপমেন্টকে আমরা সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে থাকি এবং এটি আমাদের দৃঢ় প্রতিশ্রুতি।  বায়ার পাশে থাকলে ভবিষ্যতে শতাধিক লাইনের গ্রিন ফ্যাক্টরি তৈরির পরিকল্পনা আছে। 

অভিনব ডিজাইন এবং সৃজনশীল ডেনিম পোশাক প্রস্তুতকারক হিসেবে ইতিমধ্যেই বিদেশি ক্রেতাদের কাছে পরিচিতি পেয়েছে যমুনা ডেনিমস এবং অপটিমো জিন্স।  আমেরিকা, জাপান, মধ্যপ্রাচ্য, অস্ট্রেলিয়া এবং ইউরোপের অন্য ক্রেতাদের আস্থায় পরিণত হয়েছে।  বর্তমানে ডেনিম গার্মেন্টেসের মাসিক উৎপাদন ক্ষমতা ১ মিলিয়ন পিস।  এটিকে আগামী এক বছরে দ্বিগুণ করার পরিকল্পনায় নতুন বিনিয়োগ করা হয়েছে।  বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের ডেনিমসের (জিন্স পণ্য) যে অপার সম্ভাবনা রয়েছে তার গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হতে চলছে যমুনা গ্রুপের ডেনিম এবং টেক্সটাইল প্রজেক্টগুলো।