১:৫৮ পিএম, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, শনিবার | | ৬ রবিউস সানি ১৪৪০




শুক্রবার দুপুরের মধ্যে এজাহারটি মামলা হিসাবে রেকর্ড করতে হবে

রাইফার মৃত্যু: সিইউজের আলটিমেটাম

১৯ জুলাই ২০১৮, ০৯:২৮ পিএম | মাসুম


এসএনএন২৪.কম : শিশু কন্যা রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় চকবাজার থানায় তার বাবা রুবেল খানের দাখিল করা এজাহারটি মামলা হিসাবে রেকর্ড না করায় গভীর উদ্বেগ এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেছে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন-সিইউজে। 

সিইউজের সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামল, সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস এক বিবৃতিতে শুক্রবার দুপুরের মধ্যে এজাহারটি মামলা হিসাবে গ্রহণ করে আসামীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।  অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের কর্মসুচি ঘোষনা করা হবে বলে বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ হুঁশিয়ার করে দেন।  

এদিকে উদ্ভূদ পরিস্থিতিতে নতুন কর্মসুচি নির্ধারনে শুক্রবার বিকেল চারটায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে জরুরী সভা আহবান করা হয়েছে।  এতে সংগঠনের সকল সদস্যদের উপস্থিত থাকার আহবান জানান নেতৃবৃন্দ। 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, শিশু কন্যা রাইফা’র মৃত্যুর ঘটনায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের গঠিত  উচ্চ পর্যায়ের  দু’টি তদন্ত কমিটি ম্যাক্স হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং হাসপাতালের তিন চিকিৎসককে দায়ি করে।  মামলার এজাহারে তাদেরকেই আসামী করা হয়।  বুধবার বিকেলে  এজাহারটি চকবাজার থানায় দাখিল করা হলেও রহস্যজনক কারণে পুলিশ প্রশাসন মামলাটি রেকর্ড না করে বিভিন্ন ছলছাতুরীর আশ্রয় নেয়। 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, এজাহারটি দাখিলকালে নগর পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ)এস এম মোস্তাইন হোসাইন উপস্থিত সাংবাদিকদের এজাহারটি মামলা হিসাবে রেকর্ড করা হবে বলে জানান।  একই ভাবে  সিএমপি’র কমিশনার মাহবুবর রহমান চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি কলিম সরওয়ারের সাথে টেলিফোনে আলাপকালে এজাহারটি মামলা হিসাবে গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছিলেন।  কিন্তু রহস্যজনক ভাবে পুলিশ এজাহারটি মামলা হিসাবে গ্রহণ না করে বিভিন্ন ভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছে এবং বিভ্রান্ত করছেন। 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ, ক্ষতিগ্রস্থ যে কোন নাগরিক ন্যায় বিচার পাওয়া তার সাংবিধানিক অধিকার।  কিন্তু পুলিশ প্রশাসন রুবেল খানের এজাহারটি মামলা হিসাবে গ্রহণ না করে তার সাংবিধানিক অধিকার হরণ করেছে। 

রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় চকবাজার থানায় দাখিল করা এজাহারটি মামলা হিসাবে শুক্রবার দুপুরের মধ্যে রেকর্ড করা না হলে চট্টগ্রামের সাংবাদিকরা জনগনকে সাথে নিয়ে কঠোর আন্দোলনের কর্মসুচি ঘোষনা করতে বাধ্য হবে বলে বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ হুশিয়ার করে দেন।  তারা আরো বলেন, অপপ্রচার করে আন্দোলনকে বিভ্রান্ত করা যাবে না।  চট্টগ্রামের সাংবাদিকরা রাইফা’র মৃত্যুর সাথে জাড়িতদের শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরে যাবে না।