১১:১৫ এএম, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | | ৮ রবিউস সানি ১৪৪১




রাউজানের বিনাজুরী, নোয়াজিশপুর ও কদলপুর ইউনিয়নে হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন স্বাস্থ্য সেবাদান কেন্দ্র

০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:২০ পিএম | নকিব


প্রদীপ শীল, রাউজানঃ  প্রায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে রাউজানে প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে তিন ইউনিয়নে স্বাস্থ্য সেবাদান কেন্দ্র। 

চট্টগ্রামের রাউজানে এই তিনটি ইউনিয়নে ভবন নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে। 

  স্থাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের অধীনে এসব প্রকল্পের কাজ চলছে উপজেলার কদলপুর, বিনাজুরী ও নোয়াজিশপুর ইউনিয়নে। 

পূর্বগুজরা ইউনিয়নে আরো একটি ভবন নির্মাণ কাজ শুরুর হওয়ার অপেক্ষায় আছে বলে জানাগিয়েছে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা লিকসন চৌধুরী।  উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায় কদলপুর ইউনিয়নে হচ্ছে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র। 

অপর তিনটি ইউনিয়নে হচ্ছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র।  প্রতিটি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র নির্মাণ কাজে ব্যয় করা হচ্ছে এক কোটি ৬৫ লাখ টাকা করে।  কদলপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা পাচ্ছে পাঁচ কোটি টাকা ব্যয়ে।  এই কেন্দ্রে থাকছে প্রসুতি মা শিশুর জন্য ১০ শষ্যা। 

বিনাজুরী ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কেন্দ্রের নির্মাণাধীন ভবন পরিদর্শন করে দেখা যায়, দ্বিতল ভবনটির নির্মাণ কাজ শেষ করা হয়েছে।  এখন ভবনে নিচের অংশের ভিত্তিতে মাটি ভরাট কাজ চলছে।  কাজের অগ্রগতি দেখতে আসা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাসেম এন্টারপ্রাইজের এর স্বাত্তাধিকারী সারজু মোহাম্মদ নাছের জানিয়েছেন আগামী মাসে নবনির্মিত ভবনটি উদ্বোধন করবেন রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। 

তিনি জানান, মান সম্মত চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে রাউজানের সাংসদ পরিকল্পিত সেবাদান কেন্দ্র করে চলেছেন।  নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের নির্মাণাধিন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে। 

এই প্রকল্প কাজের ঠিকাদার শওকত হোসেন বলেছেন আগামী মাসে যাতে এই ভবনটি উদ্বোধন করা যায় সেই লক্ষ্য নিয়ে তিনি কাজ শেষ করছেন।  কদলপুর  ইউনিয়নে নির্মাণ করা হচ্ছে ১০ শষ্যার বিশিষ্ট ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র।  এটি নির্মাণে ব্যয় করা হচ্ছে পাঁচ কোটি টাকা। 

পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ অবিলম্বে শুরু করা হবে বলে স্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ জানিয়েছে।  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেছেন রাউজানে স্বাস্থ্য খাত এখন স্বংসম্পূর্ণ, মানুষ ঘর থেকে বের হয়ে স্বাস্থ্য সেবা নিতে পারবে। 

বিশেষ করে নারীরা এক্ষেত্রে বেশি উপকৃত হবে।  স্থাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী ফারুক আহমদ আগামী ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকে তিন স্বাস্থ্য সেবাদান কেন্দ্রের উদ্বোধন করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। 


keya