১:৪০ পিএম, ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




রাণীশংকৈলে উন্নয়ন মূলক রাস্তার কাজে ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতি

১২ মে ২০১৯, ০৪:২৬ পিএম | জাহিদ


সফিকুল ইসলাম শিল্পী, রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) : ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে রাস্তার উন্নয়ন কাজে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে।  যে মুহুর্তে সরকার সারাদেশে রাস্তা, ঘাট, ব্রীজ,কালভার্ট, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন স্থাপনা উন্নয়নে অগ্রগণ্য ভূমিকা রাখছেন।  ঠিক সেই মুহুর্তে কতিপয় ঠিকাদার এবং সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীর অনিয়ম দূর্নীতির কারনে এসব নির্মান কাজ নিম্ন মানের হওয়ায় সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হতে বসেছে।  এমন মন্তব্য করেন ওই এলাকার সচেতন মহল। 

এদিকে এলাকাবাসী ক্ষুদ্ধ হয়ে বলেন, ‘এসব দূর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের কারনে রাস্তাঘাট, ড্রেন, কালভার্টসহ প্রায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ কিছুদিন যেতে না যেতেই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, আর সুযোগ সন্ধানী কতিপয় ঠিকাদারদের কারনে সরকারের রাজস্ব ক্ষতি এবং দূর্নাম গুনতে হচ্ছে।  লাইসেন্স বাতিল করা হোক।  এমন নিয়ম নীতি থাকলে দেশের উন্নয়ন সঠিক হতে পারেনা। 

জানা গেছে, উপজেলায় চলতি অর্থবছরে রাস্তার উন্নয়ন কাজ চলছে।  ইতোমধ্যে সাবেক -৩০১, মহিলা সংরক্ষিত আসনের এমপি সেলিনা জাহান লিটা’র গ্রামের বাড়ী সন্ধ্যারই সরকার পাড়া এলাকায়, ‘খুটিয়াটুলি নামক স্থান থেকে সন্ধারই কবর স্থান পর্যন্ত ১ কি:মি: রাস্তার উন্নয়ন কাজ অনিয়ম দূর্নীতির মধ্য দিয়ে চলছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।  প্রত্যক্ষদর্শী ফরিদ, রকেট, মুদির দোকানদার দুলালসহ অনেকেই এমন অভিযোগ করেন।  তারা বলেন, রাবিশ, গড়েয়া, পিকিট, ইটের আধরা, ইটের খোঁয়া রাস্তায় দেওয়া হচ্ছে।  ইচ্ছাকৃত আবার খোয়া পরিমানে কম দেওয়া হচ্ছে বলে জানান এলাকার অনেকেই। 

সংশিষ্ট উপসহকারী প্রকৌশলী হেলাল উদ্দীন ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, ‘ ১ কিঃ মিঃ রাস্তার মধ্যে ২০০ মিটার রাস্তার কাজ ১০ থেকে ১২ বছর আগের করা রাস্তার উন্নয়নের কাজ। তবে তিনি বলেন, সেখানে ২০০ মিটার সহ ১ কি:মি: রাস্তার কার্পেটিং এর কাজ হবে।  বর্তমানে ঠিকাদার হিসেবে আহম্মদ হোসেন বিপ্লব কাজটি করছেন’। 

এদিকে এলাকার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঠিকাদার এবং ইঞ্জিনিয়ার ছাড়াই লেবার সর্দার দিয়ে চলছে রাস্তার উন্নয়নের কাজ।  সরেজমিনে গিয়ে পথচারী এবং স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, ২ ও ৩ নং ঝাওয়া পিকিট, রাবিশ ইটের খোয়া দিয়ে মাটি যুক্ত বালি দেওয়া হয়েছে রাস্তার কাজে। 

এ প্রসঙ্গে সাবেক মহিলা সংরক্ষিত আসনের এমপি সেলিনা জাহান লিটা বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমি সংশ্লিষ্ট স্থানীয় প্রকৌশলী ও ঠিকাদারের সাথে কথা বলব।