২:১৯ পিএম, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার | | ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট এলাকায়

র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ১৬ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে

০৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৫:০৫ পিএম | নিশি


নিজস্ব প্রতিনিধি : ঔষধ মানুষের জীবন বাঁচায় কিন্তু অবৈধ ও মান বর্হিভূত ঔষধ মানুষের প্রাণনাশের কারণ হয়ে থাকে।  অবৈধ ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রয়ের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে দেশের মানুষকে মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষার জন্য র‌্যাবের অভিযান জনসাধারণের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। 

তাই গত রবিবার সকাল ১১ টা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন এলাকায় বিভিন্ন ফার্মেসীতে মেয়াদোত্তীর্ণ, মান বর্হিভূত ও অনুমোদনহীন ঔষধ বিক্রয় করছে তাদের বিরুদ্ধে র‍্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। 

লেঃ কমান্ডার আশেকুর রহমান, (এক্স), বিএনর‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর এর নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ আনিসুর রহমান, গুলশান জাহান, ঔষধ তত্ত্বাবধায়, ঔষধ প্রশাসন চট্টগ্রাম এর সহায়তায় চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন হক সুপার মার্কেট এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ড্রাগ অ্যাক্ট ১৯৪০ এর ১৮(বি) ধারা মোতাবেক শাহ মজিদিয়া ফার্মেসী এর ম্যানেজার মিঠুন চৌধুরী এবং সহকারী ম্যানেজার অভি চক্রবর্তীকে ৭৫,০০০ টাকা, আজগর শাহ ফার্মেসীমালিক তাপস বড়ুয়াকে ১,০০,০০০ টাকা, মেসার্স যমুনা ফার্মেসীমালিক মোঃ ওয়াসিম উদ্দিনকে ১,০০,০০০ টাকা, ইদ্রিস ফার্মেসীমালিক মোঃ হানিফকে ৫০,০০০ টাকা, শাহ আমানত ফার্মেসীমালিক মোঃ হেফজুল করিমকে ৭৫,০০০ টাকা, শর্মী মেডিকেল হল’র ম্যানেজার মোঃ দেলোয়ার হোসেনকে ০১ লক্ষ টাকা, ইনসুলিন সেন্টারের ম্যানেজার রাহাত আমিনকে ০১ লক্ষ টাকা, মেসার্স শাহজালাল ফার্মেসীমালিক মঞ্জুরুল আলমকে ৭৫,০০০ টাকা, খান ফার্মেসী মালিক জাকির হোসেনকে ৭৫,০০০ টাকা জরিমান করা হয়েছে।  

এছাড়াও বিভিন্ন হোটেল, রেস্টুরেন্টে এবং বেকারীতে নিম্মমানের, ভেজাল, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য উৎপাদন ও মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য ভোক্তাদের মাঝে ন্যায্যমূল্যের চেয়ে অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রয় করার অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫২ ধারা মোতাবেক আলিফ হোটেলের ম্যানেজার মোঃ মাসুদকে ৫০,০০০ টাকা, কর্ণফুলী হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার মোঃ লোকমানকে ০২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা, জান্নাত বেকারীম্যানেজার মোঃ জেবল হোসেনকে ০১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা এবং হোটেল কাশবনের ম্যানেজার মোঃ কাজী শফিককে ০৪ লক্ষ টাকা জরিমানাসহ সর্বমোট ১৬ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।   

উক্ত আদায়কৃত জরিমানার অর্থ সরকারী কোষাগারে জমা করা হয়েছে বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ আনিসুর রহমান। 

Abu-Dhabi


21-February

keya