১:০৮ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | | ৯ মুহররম ১৪৪০


রোহিতের ব্যাটিং তাণ্ডবে সিরিজ জিতলো ভারত

০৯ জুলাই ২০১৮, ১০:২৪ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : ইংল্যান্ডের সঙ্গে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে ভারত।  এর আগে সিরিজের প্রথম ম্যাচে সফরকারীরা জয় পেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে জিতে সমতায় আসে ইংল্যান্ড। 

ব্রিস্টলে রবিবার (০৮ জুলাই) তৃতীয় ম্যাচটি ছিল তাই সিরিজ নির্ধারণী।  টসে জিতে স্বাগতিকদের প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।  ব্যাট করতে নেমে জেসন রয়ের ঝোড়ো ফিফটিতে ৯ উইকেটে ১৯৮ রানের বড় স্কোর গড়ে ইংল্যান্ড। 

সিরিজ জিততে ছুঁতে হবে ১৯৯ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য।  রান তাড়ায় অল্পতেই ফিরে যান শিখর ধাওয়ান ও লোকেশ রাহুল।  শিখর ধাওয়ান দলীয় ২১ ও ব্যক্তিগত ৫ রানে সাজঘরে ফিরে যান। 

এরপর রোহিতের সঙ্গে দলকে ৬২ পর্যন্ত টেনে নিয়ে গিয়ে ফেরেন লোকেশ রাহুলও (১৯)। 

প্রথম দুই ম্যাচে বড় ইনিংস খেলতে না পারলেনও শেষ ম্যাচে আবারো নিজের জাত চেনান রোহিত শর্মা।  দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তিনটি সেঞ্চুরির কীর্তি গড়লেন।  ভাগ বসান কিউই ওপেনার কলিন মুনরোর করা সর্বোচ্চ টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরির রেকর্ডে। 

এদিন তিনি ৫৬ বলে পাঁচ ছয় এবং এগারটি চারে ১০০ রান করে অপরাজিত থাকেন।  তার ব্যাটে চড়ে শেষ টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ জিতে ভারত। 

তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক কোহলির সঙ্গে ৮৯ রানের বড় জুটি গড়েন রোহিত।  জয় থেকে ৪৮ রান দূরে থাকতে কোহলি (৪৩) ক্রিস জর্ডানকে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ফিরলেও হার্দিক পান্ডিয়াকে সঙ্গে নিয়ে বাকি কাজটা সারেন রোহিত। 

৫৬ বলে ১১ চার ও ৫ ছক্কায় ঠিক ১০০ রানে অপরাজিত ছিলেন রোহিত।  এই সেঞ্চুরির পথে টি-টোয়েন্টিতে দুই হাজার রানের মাইলফলকও ছুঁয়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।  পান্ডিয়া ১৪ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় করেন ৩৩। 

এর আগে রয় ও জস বাটলার ৭.৫ ওভারেই ৯৪ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছিলেন।  কিন্তু এ জুটি ভাঙার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানোয় ইংল্যান্ডের স্কোরটা দুইশ পার হয়নি।  রয় ৩১ বলে ৭ ছক্কা ও ৪ চারে করেন ৬৭।  বাটলার ৩৪, অ্যালেক্স হেলস ৩০, জনি বেয়ারস্টো করেন ২৫ রান। 

৩৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ভারতের সেরা বোলার পান্ডিয়া।  ব্যাট হাতেও মাত্র ১৪ বলে ৩৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিনি।  তার এই ইনিংসেই মূলত ৮ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ভারত।