১:১৭ এএম, ১৬ জুলাই ২০১৮, সোমবার | | ৩ জ্বিলকদ ১৪৩৯


শীতকালে পার্লারে গিয়ে এই ভুল করছেন কী?

০৮ জানুয়ারী ২০১৮, ০৯:১১ এএম | নকিব


এসএনএন২৪কম : শীতকাল মানেই শুষ্ক ত্বক।  শুধু ত্বক নয়, স্ক্যালপেও আর্দ্রতা কমে যায় এই সময়।  তাই শুষ্ক স্ক্যাল্পের জন্য চুলও শুষ্ক থাকে। 

সঙ্গে ফাংগাল ইনফেকশন হওয়ারও প্রবল সম্ভাবনা থাকে।  এই ধরনের সমস্যা এড়ানোর জন্য অনেকেই কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট করেন বিভিন্ন বিউটি পার্লার থেকে।  কিন্তু সংবাদমাধ্যম এবেলা'র প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশেষজ্ঞরা কেমিক্যাল ব্যবহার করতে না করছেন।  তাদের বক্তব্য, নিত্য দিনের সামগ্রী দিয়েই সম্ভব এই সমস্যার সমাধান। 

চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ বন্দনা পঞ্জাবি এবং পুষ্টি বিশেষজ্ঞ ফারাহ আফরিনের মতে, কেমিক্যাল ট্রিটমেন্টে চুলের ক্ষতিই হয়।  সাময়িক সৌন্দর্য্য বাড়লেও, তা স্থায়ী হয় না।  তাই তারা কয়েকটি সহজ উপায় ব্যবহার করার পরামর্শ দিয়েছেন। 

ভালো করে মাথায় নারকেল তেল মাখুন।  তার পরে আধ ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে নিন।  সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।  স্ক্যাল্পে বেশি জোরে শ্যাম্পু দিয়ে ঘষবেন না।  এতে স্ক্যাল্প আরও শুষ্ক হয়ে যায়।  এই সময়ে একেবারেই চুলে রং করা বা স্ট্রেট করা বা স্মুদনিং করবেন না।  শুধু শুষ্ক স্ক্যাল্প নয়, খুশকি ও চুল পড়ার সমস্যাতেও ভুগতে পারেন। 

ডায়েট একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।  ওমেগা-৩ সমৃ্দ্ধ খাবার খান।  যেমন আখরোট, আমন্ড।  এছাড়াও ডিম, তেলযুক্ত মাছ, মাংস, চিজ, ফল ইত্যাদি প্রোটিন-যুক্ত খাবার খান।  দুধ বা দুগ্ধজাত খাবার খেলে চুলের ঔজ্জ্বল্য বাড়ে।  তাই ডায়েটে যেন অবশ্যই এই ধরনের খাবার থাকে।  দেহে ঠিক ভাবে রক্ত সঞ্চালন হওয়া খুব প্রয়োজন।  আর তার জন্য অবশ্যই বেশি করে পানি খাওয়া দরকার।  শীতকালে হাইড্রেটেড থাকলে স্ক্যাল্পেও আর্দ্রতা বজায় থাকবে।