৫:২৬ এএম, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭, সোমবার | | ২৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

শ্রীপুরে ধর্ষণে অন্ত:সত্ত্বা কিশোরীর সন্তান প্রসব

০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৩:৫৭ পিএম | নিশি


আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুরে সাইটালিয়া গ্রামে ধর্ষণে অন্ত:সত্ত্বা কিশোরী (১২) বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাভাবিক অবস্থায় মেয়ে সন্তান প্রসব করেন।  বর্তমানে মা ও নবজাতক উভয়ই সুস্থ্য রয়েছে বলে জানিয়েছে ড: হাবিবা সুলতানা রুপা। 

কিশোরীর স্বজনরা জানান, বিভিন্ন ঘটনার আলোকে মাকে ছাড়া কিশোরী তাঁর বাবাকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী টেংরা গ্রামের ফুফুর বাড়ীতে গত এক মাস যাবৎ অবস্থান করছিলেন।  বুধবার বিকেলে কিশোরীর প্রসব বেদনা শুরু হলে তাকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।  পরে রাতে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসার জন্য তাকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।  সেখানেই স্বাভাবিক ভাবে কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। 

শ্রীপুর উপজেলা পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা মঈনুল হক খান জানান, সরকারী ভাবে কিশোরীর প্রসব পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সকল চিকিৎসার দায়িত্ব থাকায় রাতে আবাসিক চিকিৎসক হাবীবা সুলতানার অধীনে সুস্থ স্বাভাবিক ভাবে কন্যা সন্তান প্রসব করেন কিশোরীটি।  বর্তমানে উভয়ই সুস্থ রয়েছেন।  তবে কিশোরীর বয়সের দিক বিবেচনা করে আরো ৫/৬ দিন হাসপাতালে ভর্তি রাখতে হবে। 

উল্লেখ্য, গত ২২সেপ্টেম্বর ধর্ষণে কিশোরীর অন্ত:সত্ত্বার ঘটনায় শ্রীপুর থানায় উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের সাইটালিয়া গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে আমান উল্লাহ (২৬) কে আসামী করে শ্রীপুর মামলা হয়।  এঘটনায় এখন পর্যন্ত মূল অভিযুক্ত আমান উল্ল্যাহ্ কে আটক করতে না পারলেও সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে কিশোরীর আপন মামা উপজেলার সাইটালিয়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে হুমায়ুন কবিরকে গত ১৯নভেম্বর গ্রেপ্তার করে শ্রীপুর থানা পুলিশ। 

এদিকে কিশোরী অন্তসত্ত্বার খবরে ইতিমধ্যে গাজীপুর জেলা প্রশাসক দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির সরকারী ভাবে কিশোরী ও তাঁর সন্তানের দায়িত্ব গ্রহন করেছেন।  রাতেই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনা আকতার শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপস্থিত হয়ে কিশোরী ও তাঁর নবজাতকের খোঁজ খবর নেন।