১১:১৮ এএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭, শনিবার | | ২৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

শ্রীপুরে শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ

০৩ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৭:০৫ পিএম | মুন্না


আলফাজ সরকার আকাশ,শ্রীপুর(গাজীপুর) : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর উত্তরপাড়া গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রী শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে।  রবিবার বেলা ১২টায় শ্রীপুর থানা পুলিশ নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহিদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে। নিহত মৌসুমী আক্তার (৮) উপজেলার গাজীপুর উত্তরপাড়া গ্রামের কুদ্দুস আলীর মেয়ে। 

সে স্থানীয় গাজীপুর সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার ইবতেদায়ী শাখার প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী। তারঁ পিতা  ভিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করেন। 

নিহতের মা রমিজা খাতুন জানান, ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার আব্দুল আউয়ালের ছেলে মনিরুজ্জামানের সাথে তাঁর বোনের মেয়ে লাকী আক্তারের সাথে বেড়ানোর সূত্র ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।  মনিরুজ্জামান জয় তাঁর নানা গাজীপুর গ্রামের কদম আলী বাড়িতে থেকে পড়াশোনা করত।  এ দিকে পরিবারের লোকজন তাঁদের প্রেমের সম্পর্ক জেনে যাওয়ায় কয়েকদিন আগে লাকী আক্তারকে অন্যত্র পাঠিয়ে দেন পরিবারের লোকজন। মনিরুজ্জামান কয়েকদিন যাবৎ লাকী আক্তারের সন্ধানের জন্য মৌসুমীকে নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছিল। 

এদিকে ঘটনার সময় তিনি স্বজনের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ায় বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন না। 

নিহতের ভাই ইদ্রিস আলী বলেন, বাড়ির পাশেই গাজীপুর বাজারে এক বাউল গানের অনুষ্ঠান ছিল এদিকে তারঁ মা স্বজনদের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ায় বাড়িতে ছিলেন না।  মৌসুমীকে তাঁর ঘরে ঘুমাতে রেখে সে বাউল গান শুনতে যায়।  পরে ভোর রাতে বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের দরজা খোলা। এসময় ঘরে ঢুকে মৌসুমীর রক্তাক্ত নিথর দেহ দেখে কান্নাকাটি শুরু করেন। 

গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুস সালাম জানান, সংবাদ পেয়ে নিহতের বাড়িতে গিয়ে এ বিষয়ে শ্রীপুর থানায় খবর দেওয়া হয় পরে দুপুরের দিকে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে যায়। 

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক(এসআই) এখলাসুর রহমান জানান,প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার আলামত পাওয়া গেছে।  পরে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  পাঠানো হয়েছে। 

এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।