১২:১৩ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রোববার | | ১৫ মুহররম ১৪৪১




শ্রীপুরে ৭ গৃহহীন পরিবার পেলো পাকা বাড়ী

০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:০০ পিএম | নকিব


আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ "প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান- দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ" এ শ্লোগান সামনে নিয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রান মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় ৭টি গৃহহীন পরিবারের জন্য ৭টি বসতঘর  নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে।  

৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বিকেলে ঘরের চাবি হস্তান্তরের মাধ্যমে এর শুভ উদ্বোধন করেন গাজীপুর-৩ এর সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন সবুজ।  

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত  ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্জ্ব শামসুল আলম প্রধান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শামসুল আরেফিন, শ্রীপুর পৌর মেয়র আলহাজ্ব আনিছুর রহমান, বরমী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্জ্ব শামসুল হক বাদল সরকার প্রমূখ। 

শ্রীপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের দেয়া তথ্য মতে, ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে গ্রামীন অবকাঠামো সংস্থার ( কাবিটা) কর্মসূচীর আওতায় গৃহহীনদের জন্য দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ খাতে এ উপজেলায় বরাদ্দকৃত ১৮০৯৭১৭ টাকা ব্যয়ে ৭ গৃহহীন পরিবারের জন্য ৭টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।   প্রতিটি ঘরের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয় ২৫৮৫৩১ টাকা।  এ প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি পরিবার পায়, দুটি বেডরুম, ১টি করিডোর, ১টি রান্নাঘর, ১টি টয়লেট ও সামনে বারান্দা।  গত ২৬ জুন তারিখে এসকল ঘরের নির্মাণ শুরু হয়ে কাজ চলে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। 

যারা ঘর পেলো -১. গাজীপুর ইউনিয়নের নিজ মাওনা গ্রামের মৃত ইউনুস আলীর ছেলে আঃ মালেক,২.কাওরাইদ ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের মৃত মোমেন শেখের ছেলে তুতু মিয়া,৩. বরমী ইউনিয়নের বরমী পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত সহর আলীর ছেলে ইউসুফ, ৪.একই ইউনিয়নের বরামা গ্রামের মৃত শহীদদ মিয়ার ছেলে মোস্তফা, ৫. রাজাবাড়ী ইউনিয়নের মিটালু গ্রামের আঃ বারেকের বাকপ্রতিবন্ধী ছেলে হারুন মিয়া,৬. বরমী ইউনিয়নের চরবহর গ্রামের মৃ বুলু মিয়ার স্ত্রী কালজান বিবি ও ৭. গাজীপুর ইউনিয়নের নগরহাওলা গ্রামের মৃত জহুর আলীর ছেলে বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ করিম। 

ঘর পেয়ে উপজেলার বরমী পূর্ব পাড়া গ্রামের মৃত সহর আলীর ছোলে ইউসুফ জানান, পরিবারের ৮ সদস্য নিয়ে এতোদিন রোদ-বৃষ্টি-ঝড়ে কতোই না কষ্ট করেছি।  শেখ হাসিনা আমাদের থাকার জন্য ঘর করে দিয়েছে।  আল্লাহ উনাকে দীর্ঘজীবি করুন।  

এদিকে, ওইসকল বাড়ীতে সুপেয় পানির সুবিধার্থে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ হতে ৭টি সাবমারসিবল যুক্ত নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে।  এ বিষয়ে উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী সৈয়দ তদবীরুর রহমান জানান, স্থানীয় সাংসদের নির্দেশনায় ঘর পাওয়া পরিবার গুলোর জন্য  নিরাপদ পানির ব্যবস্থা করে দিতে প্রতিটি সাবমারসিবল যুক্ত নলকূপ বাবদ ১৩৫০০০ টাকা খরচ করা হয়েছে।  

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী এ.কে এম মোহিতুল ইসলাম জানান, গৃহহীনদের জন্য বাসস্থানের ব্যবস্থা একটি মহৎ উদ্যোগ।   মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন উদ্যোগকে বাস্তবায়ন করার লক্ষে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।   উপকার ভোগীদের চোখের দিকে তাকালে বুঝা যায় যে, তাদের বাসস্থানের কষ্টের সমাপ্তির আনন্দটা কতটা।  

ঘরের চাবি হস্তান্তর করে মাননীয় সাংসদ ইকবাল হোসেন সবুজ জানান, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল বাংলার প্রতিটি মানুষের মৌলিক প্রয়োজনগুলো একদিন পূরণ হবে।  সে স্বপ্ন পূরনে মানবতার কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা গৃহহীন পরিবারের জন্য গৃহ নির্মান করে দিয়েছেন। 


keya