৪:৫২ এএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০


নিরক্ষরতামুক্ত সমৃদ্ধ দেশ গড়ার আহবান

শ্রীমঙ্গলে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৫:০৯ পিএম | মাসুম


তোফায়েল পাপ্পু, শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি : 'সাক্ষরতা অর্জন করি, দক্ষ হয়ে জীবন গড়ি' এ প্রতিপাদ্যকে নিয়ে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত হয়েছে।  শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলার সিন্দুরখান ইউনিয়নের কুঞ্জবন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

কুঞ্জবন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য নাসিমা আক্তারের সভাপতিত্বে ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ডা. মোঃ একরামুল কবিরের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি ইসমাইল মাহমুদ। 

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন শ্রীমঙ্গল আইডিয়াল স্কুলের প্রিন্সিপাল এহসান বিন মুজাহির প্রমুখ।  আরও বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক শ্যামল চন্দ্র শীল ও রোজিনা আক্তার। 

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ইসমাইল মাহমুদ বলেন- আজকের আধুনিক দুনিয়াতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার হলেও সমস্ত দুনিয়ার মানুষ আজও শিক্ষার আলো গ্রহণ করতে পারেনি।  এমনকি নিজের পরিচয়ও লিখতে পারে না লাখ লাখ মানুষ।  তাদের সাক্ষরতাদানের উদ্দেশ্যে ইউনেস্কো ৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ব সাক্ষরতা দিবস হিসেবে ঘোষণা করে।  ১৯৬৬ সালে ইউনেস্কো প্রথম দিবসটি উদ্যাপন করলেও ১৯৭২ সাল থেকে বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত হচ্ছে। 

সবার ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসের মাধ্যমে দেশের সাক্ষরতার হার শতভাগে উন্নীত করে দেশের প্রতিটি নাগরিককে মানবসম্পদে পরিণত করা এখন সময়ের দাবি। 

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় প্রিন্সিপাল এহসান বিন মুজাহির বলেন-কয়েক বছর আগেও দেশে অনেক মানুষ নিরক্ষর ছিল।  কিন্তু এখন শিক্ষার মান বেড়েছে।  বর্তমান সরকার শিক্ষার ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্ব দিয়েছে।  এখন ঘরে-ঘরে ছেলে-মেয়েরা শিক্ষিত।  আমরা যদি বাংলাদেশকে সুন্দর, সমৃদ্ধ ও কল্যাণকর রাষ্ট্র তৈরি করতে চাই, তা হলে অবশ্যই সাক্ষরতা দিবসকে সামনে রেখে নিরক্ষরদের সাক্ষর জ্ঞানে গড়ে তোলার বিকল্প নেই। 

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা, ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন। 



keya