৩:৪২ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, সোমবার | | ৪ মুহররম ১৪৩৯

South Asian College

শার্শার ছেলে ঢাকা থেকে তিন মাস ধরে নিখোঁজ, পরিবারের উৎকন্ঠা

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৬:৪০ পিএম | সাদি


মীর ফারুক, শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের  শার্শায় মোঃ ওয়াসিম নামের ১ যুবক দীর্ঘ ২/৩ মাস নিখোঁজ আছে।  নিখোঁজ যুবকের বাড়ি শার্শা উপজেলা লক্ষণপুর ইউনিয়নের বহিলাপোতা গ্রাম আলী আহম্মদ ফনুর ছেলে।  নিখোঁজ ওয়াসিম বেনাপোল কলেজের ছাত্র ছিলেন। 

পারিবারিক সূত্রে জানা যায় ওয়াসিম বেনাপোল কলেজ থেকে এইচ.এস.সি পাস করার পর বাড়িতে থাকত।  সে কোন কাজকর্ম না করায় তার বাবা ফনু তাকে বকা ঝকা করত।  গত তিন মাস আগে কাউকে কিছু না বলে সে ঢাকা চলে যায়।  কিছুদিন পর সে পরিবারের কাছে বলে আমি ঢাকায় চাকরি করছি।  এক মাসের বেতন ৮,০০০/- (আট হাজার) টাকা সে বাড়িতে পাঠায়।  ঈদের ১৫ দিন আগে তার বাড়িতে আসার কথা থাকলেও সে বাড়িতে আসে নাই।  তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বরটি ০১৭১৯-৯১৫৮১০ এখনো বন্ধ আছে। 

নিখোঁজ ওয়াসিমের বাবা ফনু এই প্রতিবেদককে জানান আমার ছেলে রাগ করে বাড়ি থেকে ঢাকা চলে যায়।  মাঝে মধ্যে পরিবারের সাথে যোগাযোগ করত।  কিন্তু গত ঈদুল ফিতরের ছুটিতে বাড়ি আসার কথা থাকলে সে বাড়িতে আসে না।  আমার ছেলে বর্তমান ব্যবহৃত  মোবাইল নাম্বারটি দীর্ঘদিন বন্ধ পাচ্ছি।  তার কোন খোজ খবর আমরা পাচ্ছি না।  আমরা চরম উৎকন্ঠায় দিন পার করছি। 

সে ঢাকায় একটি কোম্পানীতে কাজ করত, কিন্তু কোন কোম্পানীতে কাজ করত সে কখনো আমাদেরকে বলেনি।  ওয়াসিম রাগ করে বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার কারণে পরিবারের সাথে সব সময় যোগাযোগ কম রাখত।  সেই কারণে নিখোঁজ এর বিষয়টি প্রথমে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়নি।  এখন আমার ছেলের কোন খোজ খবর না পেয়ে থানায় জিডি করতে গেলে শার্শা থানা পুলিশ জিডি নিতে অপারগতা জানান। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শার্শা থানার ডিউটি অফিসার এস.আই আজমল হোসেন বলেন, কোন ব্যক্তি যেস্থান হতে নিখোঁজ হয় সেই স্থানের অন্তর্গত থানায় জিডি করতে হয়।  সেই থানা নিখোঁজের বিষয়টি তদন্ত করে।  এই কারণে আমরা শার্শা থানায় জিডি অন্তর্ভুক্ত করি নাই।  এদিকে নিখোজ ওয়াসিমের পরিবার চরম হতাশা ও চরম উৎকন্ঠায় দিন পার করছে।