৯:১৩ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | | ৯ মুহররম ১৪৪০


শেষ দিনে বইমেলা শুরু হবে সকাল ১১ টায়

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | মাসুম


এসএনএন২৪.কম ডেস্ক : আজ শেষ হচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭।  তাই মেলায় বেজে উঠেছে বিদায়ের সুর।  প্রকাশকদের অনুরোধের মুখে শেষ দিনে মেলা শুরু হবে বেলা ১১টা থেকে।  চলবে যথারীতি রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত। 

শেষদিকে বইপ্রেমীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে মেলায়।  বেশিরভাগ পাঠকের হাতে হাতে ছিল বইয়ের ব্যাগ।  এক প্রকাশনী থেকে আরেক প্রকাশনী ছুটেছেন বই প্রেমীরা।  ঘুরে ঘুরে পছন্দের বই কিনছেন সবাই।  এমন চিত্রই দেখা গেছে বই মেলার ২৭তম দিনে। 

প্রকাশকরা মনে করেন, বইমেলার শুরুর দিকে মানুষ আসে ঘুরতে।  বই নেড়েচেড়ে দেখে।  কেনে কম।  কিন্তু শেষদিকে ঘোরাঘুরির চেয়ে তাদের মধ্যে বই কেনার আগ্রহ দেখা যায় বেশি।  মেলায় আসা নতুন নতুন বইয়ের তালিকা হাতে নিয়ে ঘোরে পাঠকরা।  শেষদিকে শুধুই কেনার পালা। 

অন্বেষা প্রকাশনীর কর্ণধার শাহাদত হোসাইন এবারের মেলায় বই বিকিকিনি নিয়ে সন্তুষ্ট।  তিনি জানান, শেষের দিকে বিক্রি বেড়েছে অনেক গুণ।  পাঠকরা এখন পছন্দের বইগুলো আগ্রহের সঙ্গে কিনে নিয়ে যাচ্ছে।  শেষদিনে এ সংখ্যা অারো বাড়তে পারে। 

২৭তম দিনে বইমেলার এসে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী রুনা লায়লা ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এম এস নূপুর জানান, পড়াশোনা ও পরীক্ষার চাপে প্রথম দিকে মেলায় আসতে পারিনি।  শেষদিকে এসে পছন্দের বইগুলো কিনে নিয়ে গেলাম।  মেলার জন্যই ময়মনসিংহ থেকে ঢাকায় এসেছি।  পছন্দের বইগুলো সংগ্রহ করতে পেরে ভালো লাগছে। 

এদিকে বাংলা একাডেমী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে রয়েছে সমাপনী অনুষ্ঠান।  এখানে থাকবেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।  এতে গ্রন্থমেলার সার্বিক বিষয়ে একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হবে।  এই অনুষ্ঠানে কবি শামীম আজাদ ও লেখক-অনুবাদক নাজমুন নেসা পিয়ারি পাবেন সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ পুরস্কার। 

এছাড়া ২০১৬ সালে প্রকাশিত বিষয় ও মানসম্মত বই প্রকাশের বিভিন্ন বিভাগে চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার, মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার ও রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই স্মৃতি পুরস্কার-২০১৭ প্রদান করা হবে।  একই সঙ্গে ২০১৭ সালের গ্রন্থমেলায় অংশগ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে নান্দনিক স্টল বা প্যাভেলিয়ন সজ্জার জন্য দেওয়া হবে কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার ২০১৭।