৮:৪০ এএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৭ মুহররম ১৪৪১




শসা চাষে ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়েছেন রিপন

২৬ মে ২০১৯, ০৯:২২ পিএম | জাহিদ


আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট : চলতি মৌসুমে শসা চাষ করে নিজের ভাগ্যকে বদলে দিয়ে বেশ লাভবান হয়েছেন রিপন নামের এক দরিদ্র কৃষক।  তিনি লালমনিরহাট আদিতমারী উপজেলার ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের পশ্চিম ভেলাবাড়ী গ্রামের মৃত সিরাজ মিয়ার ছেলে। 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জেলার মধ্যে আদিতমারী উপজেলার কমলাবাড়ী, ভেলাবাড়ী ও সারপুকুর ইউনিয়নে বেশি সবজী উৎপন্ন করে দেশের বিভিন্ন জায়গায় ট্রাকযোগে বিক্রি করে বেশ লাভবান হয়েছেন।  তাই এখানকার কৃষকরা অন্য অন্য ফসলের দাম বাজারে না থাকায় প্রতি বছর ন্যায় এ মৌসুমে বেশি দাম ও লাভের আশায় তিন মাস মেয়াদি স্বল্প খরচে অধিক লাভের আশায় শশা চাষ করে থাকেন। 

তার মধ্যে রিপন নামের কৃষক বাবা মারা যাওয়ার পর রেখে যাওয়া জমি সবার মাঝে ভাগ-বাটোয়া করে সামান্য জমি দিয়ে কোন রকমভাবে দিনযাপন করত।  পরে তার নিজের ভাগ্য বদলাতে স্থানীয়দের সহয়তায় আত্মকর্মসংস্থানের জন্য উপজেলা সমাজ কার্য্যলয় থেকে সুদমুক্ত ২০ হাজার টাকা ঋন প্রদান করে উৎসাহ প্রদান করা হয়।  পরে তার ২৭ শতক (এক দোন) জমিতে শশা চাষ করে বেশ লাভবান হচ্ছে।  প্রতি সপ্তাহ ক্ষেত থেকে ২০ থেকে ৩০ মন শশা তুলে বিক্রি বর্তমান বাজারে ৩০০ টাকা দরে ১০ থেকে ১৫ টাকা বিক্রি করেছেন।  এখন রিপন তার শশা ক্ষেতে রাতদিন হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করছে।  সে এখন প্রতি সপ্তাহে বিক্রি হাজার, হাজার টাকা পাচ্ছে। 

এতে দেখা যায় একটা মোটা অংকের পুজি সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।  তার ২৭ শতক জমিতে খরচ হয়েছে প্রায় ২০ হাজার টাকার মত।  শশা চাষ করলে দেখা যায় পরবর্তিতে অন্য ফসলে বেলায় সারের প্রয়োজন হয়না

কৃষক রিপন মিয়া জানান, আমাকে উপজেলা সমাজ সেবা কার্য্যলয় থেকে যে সুদমুক্ত ঋন প্রদান করেছে সেই টাকা দিয়ে স্বল্প সময়ে শশা চাষ করে বেশ লাভবান হয়েছি।  যদি আবহাওয়া ভাল থাকে রোগ বালাই না থাকে দাম বেশি থাকে তাহলে আরও ৫০ হাজার টাকার মত পাব বলে আশাবাদী।  পাশাপাশি ঋনের পরিমান বৃদ্ধির জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানান। 

অত্র ইউনিয়নে উপজেলা সমাজ সেবা কার্য্যলয়ে দায়িত্বে থাকা কর্মচারী (কারিগরি প্রশিক্ষক) রাকিবুল হাসান জানান, সুদমুক্ত ঋন প্রদান করে ৪ টি গ্রামে ৪৪ জন কৃষককে আত্ম সামাজিক উন্নয়নে সমাজ সেবা কার্য্যলয় অবধান রাখছে। 

উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সুকান্ত সরকার জানান, সমাজ সেবা অফিসের মাধ্যমে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীসহ গ্রামের দুৎস্থ্য অসহায় দরিদ্র কৃষকদেরকে সুদমুক্ত ঋনের মাধ্যমে স্বাবলমী করা হচ্ছে। 


keya