৯:৪০ পিএম, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, সোমবার | | ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০




‘সন্তানদের মানুষের মত মানুষ করতে চাই’

০৩ জুলাই ২০১৮, ১১:০৮ এএম | জাহিদ


ও এফ এম মাসুম : ইট পাথরের শহরে একটু অবসর পেলেই স্বস্তির নিশ্বাস নিতে সবাই ছুটে যাই নগরীর বিনোদন কেন্দ্র গুলোতে। সেই বিনোদনের জায়গা গুলো থাকত সবসময় বখাটেদের দখলে। তবে গত সপ্তাহে থেকে বখাটেদের লাগাম টানতে শুরু করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ(সিএমপি)। তাই ক্লান্তি কে ছুটি দিয়ে একটু শান্তির বাতাস গ্রহন করতে গিয়েছিলাম নগরীর অন্যতম পরিচিত সিআরবিতে। 

যখন শরীরে একটু ঠান্ডা বাতাস জড়িয়ে নিচ্ছিলাম তখন পিছনে থেকে ডাক "মামা চা খাবেন? পিছনে ফিরে থাকাতে দেখি চা বিক্রেতা বয়স্ক লোক। 

চা খাওয়ার ইচ্ছা না থাকলে গল্প জুডে দিলাম চা বিক্রেতার সাথে। 

প্রশ্ন : মামা নাম কি?
চা বিক্রেতা : আবদুল আওয়াল

প্রশ্ন : কোথায় থাকেন?
চা বিক্রেতা : টাইগারপাস এলাকায়। 

প্রশ্ন : পরিবারে কে কে আছে?
চা বিক্রেতা : ২ছেলে ২মেয়ে। 
প্রশ্ন : চট্টগ্রামে আসছেন কতসালে?
চা বিক্রেতা : মনে নেই

প্রশ্ন : এখানে চা বিক্রি কতদিন হয়?
চা বিক্রেতা : ১৫বছর ধরে। 

প্রশ্ন : দিনে কতটাকার চা বিক্রি করেন.???
চা বিক্রেতা : ৭০০/৮০০টাকা

প্রশ্ন : লাভ কেমন থাকে?
চা বিক্রেতা : এইতো ৫০০টাকা

প্রশ্ন : এই চা বিক্রি করে আপনার স্বপ্ন কি???
চা বিক্রেতা : ছেলে মেয়েদের মানুষের মত মানুষ করা। যাতে মানুষ নামধারী অমানুষ না হয়। 

প্রশ্ন : যেমন?
চা বিক্রেতা : কি আর বলব এই সিআরবিতে কত কিছু দেখি তখন আমার নিজের সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়ি। তাই সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে খুবই সতর্ক থাকি। 

প্রশ্ন : সিআরবিতে তো আপনি একযুগের বেশি। এমন কিছু তো দেখেন যা অপরাধ অন্যায় রহস্যজনক?
চা বিক্রেতা : মামা এই পনের বছরে অনেক কিছু তো দেখলাম। আমি দেখলে তো কিছুই হবেনা তাদের। আর দেখলে তো বলতে পারব না। কারন আমি একজন মাত্রই চা এর ফেরিওয়ালা...!!!
হঠাৎ করে...মামা গল্প তো অনেক হল। চা খাবেন না। 
এমন প্রশ্নে আমার উত্তর ছিল দেন খেয়ে দেখি। তবে টাকা দিব না। 
চা বিক্রেতা : টাকা না হয় না নিলাম। 
ইচ্ছা না থাকা সত্ত্বেও চা খেয়ে অনুরোধ ছিল মামা আপনার একটা ছবি তুলি...???
চা বিক্রেতা : না মামা ছবি তোলা যাবে না। 

প্রশ্ন : কেন?
চা বিক্রেতা : কারন আপনি আমার ছবি তুলে যদি ছেড়ে দেন...???

প্রশ্ন : কোথায় ছাড়ব?
চা বিক্রেতা : কেন জানিনা মনে করছেন। সব খবর রাখি। ফেইসবুকে ছাড়বেন আর কি। 

প্রশ্ন : তো কোন সমস্যা.?
চা বিক্রেতা: না মামা কোন সমস্যা নেই। তবে আমার এলাকার লোক যদি দেখে ফেলে আমার চা বিক্রির এই ছবি। 
প্রশ্ন : আপনার এলাকার লোক জানেনা আপনি চা বিক্রি করেন.?
চা বিক্রেতা: না মামা। 

চা পানের টাকা পরিশোধ করে আমি আমার গন্তব্যে।  তিনি আবার ডাক ছাড়িলেন...এই মামা চা খাবেন...???

(অবশেষে কোনমতে নিজ মোবাইলে তার অজান্তে একটি ছবি ধারন)

লেখক: সাংবাদিক ও মানবধিকার কর্মী।