৭:০২ পিএম, ২৩ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৮ রমজান ১৪৪০




সুনামগঞ্জ সীমান্তে জ্যান্ত নয় এবার জবাইকৃত গরুর মাংস চোরাচালান

০৮ মে ২০১৯, ১০:৪২ পিএম | জাহিদ


হাবিব সরোয়ার আজাদ, সিলেট : সুনামগঞ্জ সীমান্তে জ্যান্ত নয় এবার  অভিনব পদ্ধতিতে জবাইকৃত গরুর মাংস চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসার পথেই বর্ডার গার্ড  বাংলাদেশ (বিজিবির) টহল দলের হাতে সেই মাংস আটকের ঘটনা ঘটেছে। 

বুধবার বেলা ২টার দিকে ২৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন বিজিবির সুনামগঞ্জ অঞ্চলের দোয়ারাবাজারের বাঁশতলায় চারটি বস্তাভর্তি প্রায় ১ মণ (৪০) কেজি গরুর গোশত আটক করেছে স্থানীয় বিজিবির টহল দল।  

ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে.কর্ণেল মাকসুদুল আলম জানান, সীমান্তের এপার থেকে ভোররাতে কসাই পাঠিয়ে ভারতের অভ্যন্তরে ওপারের চোরাচালানিদের সহায়তায় কয়েকটি গরু জবাই করা হয়।  এরপর একদল গরু চোরাকারবারি সময় সুযোগ বুঝে ধাপে ধাপে জবাইকৃত গোশত  চোরাই পথে বিজিবির নজর এড়িয়ে এপারে নিয়ে আসার জন্য বুধবার সকাল থেকে তৎপর হয়ে উঠে।  কিন্তু বিধি বাম ব্যাটালিয়নের দোয়ারাবাজারের বাঁশতলা বিজিবির বিওপির ক্যাম্প কমান্ডার হাবিলদার আসলামের নেতৃত্বে একদল চৌকস বিজিবির সদস্য চারটি বন্তাভর্তি গরুর গোশতের চালান আটক করে।  

তিনি আরো বলেন, ধারণা করা হচ্ছে সীমান্তে বিজিবির তৎপরতার কারনে গরু চোরাচালানে বাঁধা, গরুর চালান আটকের পর দিন দিন পুঁজি হারানো এমনকি মামলার ঝুঁকি এড়াতে সীমান্তের কাছাকাছি হাটবাজারে থাকা মাংস বিক্রেতাদের সাথে এবার গোপন চুক্তিতে জবাইকৃত গরুর গোশত চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসার অভিনব পদ্ধতি বের করেছিলো চোরাকারবারিরা কিন্তু বিজিবি তাও ঠেকিয়ে দিয়েছে এমনকি এ প্রক্রিয়ার সাথে যারা জড়িত তাদের ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থাও নেয়া হবে।    

পরবর্তীতে একই দিন বিকেলে জব্দকৃত চোরাই গরুর মাংস স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে দূর্গন্ধ রোধে কেরোসিন ঢেলে মাঁটি চাপা দেয়া হয়। 


keya