৪:৪৬ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




স্বাধীন মানচিত্রে ইতিবৃত্ত

২৫ মার্চ ২০১৯, ০২:৩৭ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : 

এক রাত্রি দ্বিপ্রহরে,

নিগূঢ় প্রসুপ্ত বাঙালীর- পঁচত্বের মিছিল।  

দীপক ছিলনা দীপ্তিমান, শ্বেতাব ছিল একটুখানি, অনল ছিল সুশীল। 

দুর্ভেদ্য প্রসুপ্ত রাখালের-গা ছিড়ে, রূধির গন্ধে বইছে অনিল।  

প্রসূতির কোলে শিশুর কলনাদ, বিষণ্ন গগন ছিল না সুনীল। 


তড়িঘড়ি বিস্মিত নয়নে,অশ্রু বাসে লাশের মিছিল দর্শনে।  

প্রাণোচ্ছল দেহে রক্তগুন্ঠন, নিষ্প্রাণ হয় অকরুণ গুলি বর্ষণে।  

'কালরাত্রি'র ইতিবৃত্ত আঁকা, প্রাণোচ্ছল দেহের প্রাণ কর্ষণে।  

শ্যামবর্ণে লাল বৃত্ত পতাকা, অঙ্কিত হয় প্রতিশোধ এর অগ্নি-ঘর্ষণে। 


এক সিন্ধু রূধির তরঙ্গে মিশ্রিত জননীর প্রাণ।  

স্বাধীনতা তুমি ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তক্ষয়ী ঘ্রাণ।  

তুমি শ্যামবর্ণে অরুণ চূড়া, অঙ্গ প্রাণ এর ম্লান।  

তোমায় পেতে কাঙ্গাল বাঙালীর, প্রাণ হলো বলিদান। 


অগ্নি দেহে বজ্রধ্বনি প্রতিশোধ,বাঙালীর প্রাণ ছিল অক্ষ।  

স্বাধীনতা তুমি ঝরে পড়া রক্তের,

ছিদ্র হওয়া বক্ষ। 

নামহীন ভূমির, মুজিব ছিল স্বাধীনতার বৃক্ষ।  

স্বাধীনতা তুমি এসেছো বলে, হেসেছে গগনের সব ঋক্ষ। 


তরুণের ধৃতি ছেড়া ধাবমান, নাহি করে কর্ণপাত -জননীর নদ্ধ।  

প্রগাঢ় যোদ্ধা করেছিল তাকে, মায়ের রিক্ত হওয়া কান্নার চূর্ণিত - শব্দ।  

সাত কোটি বাঙালীর রূধির প্রমাদ, বেঁধেছিল সেদিন, স্বত্বত্যাগের রক্তক্ষরণ যুদ্ধ ।  

স্বাধীনতা তুমি,

সাত কোটি বাঙালীর রক্তকেনা,ষোল কোটি বাঙালীর অনুভূতির ত্রুদ্ধ। 


সূক্ষ্ম প্রেরণার ঝরনা,

মুজিবের ভাষণ বিশারদ আর্তনাদের সূর।  

সাত কোটি বাঙালীর প্রাণ হলো এক, নির্মম অত্যাচার হয় দূর। 

নয়ন জুড়ে বিস্মিত স্বপ্ন প্রগাঢ়, এসেছে নব্য রবির ভোর।  

স্বাধীনতা তুমি,

 বঙ্গবন্ধুর দমে লিখা,

বন্দি শালা'র চূর্ণ হওয়া ডোর। 


বিক্ষুব্ধ বাঙালীর, রুষ্ট হওয়া প্রাঞ্জল প্রতিশোধ, চূর্ণ করে পাকিস্তানের নির্মম বঞ্চনা।  

রক্ততক্ষরণ বিজয়ী নেশা, মরণপণের ধারালো সংগ্রাম, ধসে দিলো বাঙালি,

চূর্ণ হলো সব লাঞ্ছনা।  

চৈতন্যের জোয়ার আসে, দুর্দম্য সাহস জাগে,বেজে উঠে ঝাঁজাল তোপের তীব্র যন্ত্রণা।  

স্বাধীনতা তুমি,

মুক্তির উন্মদনার নাম,

সাত কোটি বাঙালীর প্রাণ করেছো গ্রন্থনা। 


একটি ভূখন্ড খচিত রক্ত লহরী ইতিহাস,

অকূল সংগ্রামের প্রকৃষ্ট বীর-মুজিব তুমি।  

যদি না আসিতে ভূবনের কোলজোড়ে,পেতামনা মুক্তি, মানচিত্রে অঙ্কিত হতোনা বাংলা ভূমি। 

প্রাণ হারা দেহে আবরিত রক্ত, আর

দুই লক্ষ নারীর ইজ্জতের স্বাধীনতা তুমি।  

তুমি ত্রিশ লক্ষ শহীদের বক্ষছেড়া ধন,

ষোল কোটি বাঙালীর কোলে দিয়েছো - মুক্ত জন্মভূমি। 


লেখক : মো.রাসেল উদ্দীন জয়

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ,সরকারি সিটি কলেজ চট্টগ্রাম