৩:২৪ পিএম, ২১ জুলাই ২০১৯, রোববার | | ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০




‘সমুদ্র সম্পদ সুষ্ঠু আহরণ ও ব্যবস্থাপনার জন্য প্রয়োজন অধিকতর গবেষণা’

২২ এপ্রিল ২০১৯, ১১:২৯ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, অপার সম্ভাবনা, অফুরন্ত সম্পদ এবং জীববৈচিত্রে ভরপুর আমাদের সমুদ্র সম্পদ সুষ্ঠু আহরণ ও ব্যবস্থাপনার জন্য প্রয়োজন বুদ্ধিবৃত্তিক ও জ্ঞানগর্ভ আলোচনা পর্যালোচনা এবং অধিকতর গবেষণা।  আর এর জন্য দরকার জ্ঞান-গবেষণায় সমৃদ্ধ দক্ষ-যোগ্য জনশক্তি। 

(২১ এপ্রিল) চবি মেরিন সায়েন্সেস এন্ড ফিশারিজ অনুষদ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষদের নবীন বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।  অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস-এর পরিচালক জনাব মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান চৌধুরী। 

উপাচার্য তাঁর ভাষণে নবীন শিক্ষার্থীদের বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে চবি সবুজ ক্যাম্পাসে স্বাগত জানান।  তিনি বলেন, দেশের দক্ষিণ-পূর্বা লের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞান-গবেষণায় দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে।  বর্তমাান প্রশাসন দায়িত্বভার গ্রহণের পর থেকে একাডেমিক কার্যক্রমে গতিশীলতা এবং প্রশাসনিক ও ভৌত অবকাঠামোগত দৃশ্যমান উন্নয়ন সাধিত হয়েছে।  যার স্বীকৃতি স্বরূপ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় দেশের সর্বোচ্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের খেতাবে ভূষিত হয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, অত্যাধুনিক, নান্দনিক এবং আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন মেরিন সায়েন্স এন্ড ফিশারিজ ফ্যাকাল্টি ভবনের নির্মাণ কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে।  মাননীয় উপাচার্য বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু তনয়া আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার সমুদ্র বিজয়ের পর এই ফ্যাকাল্টির অন্তর্গত সম্মানিত শিক্ষক-গবেষক, শিক্ষার্থী এবং সংশ্লিষ্ট সকলের দায়িত্ব অনেকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।  তিনি আরও বলেন এই ফ্যাকাল্টির অন্তর্গত সম্মানিত শিক্ষক-গবেষকবৃন্দ অত্যন্ত গুণী ও প্রজ্ঞাবান।  উপাচার্য নবীন শিক্ষার্থীদের বিভাগের গুণী শিক্ষকদের সংস্পর্শে থেকে লেখাপড়ায় অধিকতর মনোযোগী হয়ে জ্ঞান গবেষণায় নিজেদের সমৃদ্ধ করার আহ্বান জানান।  

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ফিশারিজ বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. হোসেন জামাল এবং ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস এর প্রফেসর ড. মো. এম. মারুফ হোসেন।  অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সুরাইয়া বিনতে তরী এবং মো. মেহেদী হাসান।  অনুষ্ঠানে উক্ত অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।  পরে বিভাগের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। 


keya