৬:০৩ এএম, ২৯ মে ২০২০, শুক্রবার | | ৬ শাওয়াল ১৪৪১




সীমানা পেরিয়ে ত্রাণ বিতরণ করছেন পৌর কাউন্সিলর কাজী মোহাম্মদ ইকবাল

১৩ মে ২০২০, ০৫:১২ পিএম | নকিব


প্রদীপ শীল, রাউজানঃ রাউজান পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের সীমানা পেরিয়ে ত্রাণ বিতরণ করছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী মোহাম্মদ ইকবাল। 

যেই কোন প্রান্ত থেকে ফোন আসলেই নিজে পৌঁছে দিচ্ছে খাদ্য সামগ্রী।  ১২ মে দিবাগত রাতে রাউজান পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের রামজীবন মহাজন বাড়ী, সুলতানপুর কাজী পাড়া থেকে কাজী ইকবালকে মোবাইলে করে সাহায্য চাওয়া হয়। 

তারা মধ্যবিত্ত পরিবারের কয়েকজন ছিল।  ফোন করার সাথে সাথে এসব পরিবারের মাঝে রাতের অন্ধকারে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন কাউন্সিলর কাজী মোহাম্মদ ইকবাল। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসান, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মো: নাসির উদ্দীন,গহিরা ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব কে এম আবদুল্লাহ আল মতিন, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন পিবলু, জিকু দত্ত, সালমান শিফুলসহ আওয়ামী লীগ,  যুবলীগ নেতৃবৃন্দরা। 

এ প্রসঙ্গে কাজী মোহাম্মদ ইকবাল জানান, দীর্ঘ ত্রিশ বছর রাজনীতির সাথে সক্রিয় ভাবে যুক্ত আছি।  সঙ্গত কারণে আমার সাথে পুরো রাউজানের মানুষের নিবিড় সম্পর্ক।  বর্তমানে আমি একটি ওয়ার্ডের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি।  আমি সরকারী ত্রাণ বরাদ্দ পায় আমার নির্বাচনী জনগনের জন্য।  কিন্তু অন্যান্য এলাকার লোকজন আমাকে ফোন করে খাদ্য সহযোগীতা চাই।  আমি কাউকে না করি না।  বরং আমি আত্ম সন্তুষ্টি পায়।  করোনাভাইরাসের আঘাতে বিশেষ কর মধ্যবিত্তরা মানবেতর জীবণ যাপন করছে।  সহজে তারা সাহায্যের জন্য হাত বাড়াতে পারে না।  অনেকটা নিরুপায় হয়ে ফোন করে তারা।  রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীরও নির্দেশনা ছিল মধ্যবিত্তদের খাদ্য সহায়তা করারর জন্য।  সে-লক্ষ্যে সাংসদ পুত্র ফারাজ করিম চৌধুরীর ত্রাণ তহবিল ও আমার ব্যাক্তিগত তহবিত থেকে পুরো রাউজানে মধ্যবিত্তদের ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি।  তিনি বলেন,  এই পর্যন্ত চার হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছি।  আমি খাদ্য বিতরণ অব্যাহত রেখেছি।  আমি চেষ্টা করছি নিজের ওয়ার্ড সীমানা পেরিয়ে করোনা মোকাবিলায় রাউজানের মানুষের পাশে দাড়াঁতে।