১১:২৮ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার | | ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

হুইস্কিতে পানি মেশালে স্বাদ বাড়ার গোপন রহস্য

২৩ আগস্ট ২০১৭, ১২:০১ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : কয়েক ফোঁটা পানিতেই হুইস্কির স্বাদ বাড়ে।  মদিরা-পণ্ডিতদের এই দাবির পক্ষেই এবার প্রমাণ দিলেন বিজ্ঞানীরা। 

সুইডেনের লিনেয়াস বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকদের দাবি, হুইস্কিতে পানিতে মেশালে তার অণুগুলিতে রাসায়নিক পরিবর্তন হয়।  এর ফলেই, তার স্বাদ বাড়ে। 

বিজ্ঞানীরা জানান, হুইস্কি হল রাসায়নকভাবে ভীষণই জটিল তরল পানীয়।  তারা বলেন– মল্টিং, ম্যাশিং, ফার্মেন্টেশন, ডিস্টিলেশন এবং অন্ততপক্ষে কাঠের ব্যারেলে ম্যাচিয়োরিং করার পর তৈরি হয় হুইস্কি।  প্রথমে সেই হুইস্কিকে জল দিয়ে তার মধ্যে অ্যালকোহলের ঘনত্ব কমিয়ে ৪০ শতাংশে কমিয়ে আনা হয়।  এতে হুইস্কির স্বাদে আমূল পরিবর্তন আসে। 

বিজ্ঞানীদের মতে, হুইস্কির স্বাদ আসে মূলত তার অ্যাম্ফিফ্যাটিক অণুর থেকে।  এই অণুগুলি হাইড্রোফোবিক ও হাইড্রোফিলিক উপাদান দিয়ে তৈরি।  এই উপাদানগুলির অন্যতম হল গুয়াইয়াসল। 

মল্ট হুইস্কি তৈরির সময় তাতে ‘স্মোকি ফ্লেভার’ আনতে যখন শস্যকে ঘাসের ধোঁয়ায় শুকানো হয়, তখন তাতে তৈরি হয় গুয়াইয়াসল।  গুয়াইয়াসল কেমন কাজ করে এটা বুঝতে গবষকরা এই রাসায়নিকের দিয়ে জল ও ইথানলের মিশ্রণের ওপর বিভিন্ন পরীক্ষা-নীরিক্ষা চালান। 

দেখা গিয়েছে, ইথানল অণুর সঙ্গে ভাল মেশে গুয়াইয়াসল।  যে মিশ্রণে ইথানলের মাত্রা সর্বাধিক ৪৫ শতাংশ রয়েছে, সেখানে গুয়াইয়াসল হুইস্কির একেবারে উপরে থাকে।  অর্থাৎ, হুইস্কির গ্লাসে গুয়াইয়াসল একেবারে পানীয়র ওপরে থাকে, যা তার স্বাদ ও গন্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। 

বিজ্ঞানীরা আরও জানান, এই হুইস্কিতে জল মিশিয়ে অ্যলকোহলের মাত্রা ৪৫ থেকে ২৭ শতাংশে নামিয়ে আনলে, গুয়াইয়াসলের মাত্রা আরও বেড়ে যায়।  অন্যদিকে, অ্যালকোহল ৬০ শতাংশের কাছাকাছি হলে, তখন আবার গুয়াইয়াসলের মাত্রা কমে যায়। 

তবে, বিজ্ঞানীরা এ-ও জানান, দিনের শেষে প্রত্যেক মানুষের জিহ্বার স্বাদ আলাদা, তাদের পছন্দও আলাদা।  ফলে, কে কতটা পানি মেশাবেন, তা ব্যক্তি-স্বাধীনতার বিষয়। 

Abu-Dhabi


21-February

keya