৮:১৬ এএম, ২৮ নভেম্বর ২০২১, রোববার | | ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩




হাই হিল পরার ক্ষতি

১৮ নভেম্বর ২০২১, ১০:৪৬ এএম |


এসএনএন২৪.কম: নিজেকে একটু লম্বা ও আকর্ষণীয় দেখাতে নারীদের অনেকেই হাই হিল বা উঁচু হিলের জুতা পরেন।  কিন্তু নারীদের হাই হিল পরার স্বাস্থ্যগত প্রভাব রয়েছে। 

এর বড় ধরনের ক্ষতিকারক দিক রয়েছে, যা অনেকেই জানেন না। 

মাংসপেশির ভারসাম্য নষ্ট হতে পারে

সম্প্রতি প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হাই হিলের জুতা পরার কারণে নারীদের গোড়ালির কাছের মাংসপেশির ভারসাম্য নষ্ট হতে পারে।  এ থেকে শরীরে অস্থিতিশীলতা ও ভারসাম্যহীনতার সমস্যাও দেখা দিতে পারে। 

মেরুদণ্ড থেকে পা পর্যন্ত ব্যথা

হাই হিল পরলে মেরুদণ্ড ও নিতম্বের মাঝের জায়গা অর্থাৎ শ্রোণির ওপরে অতিরিক্ত চাপ পড়ে।  এতে মেরুদণ্ড, শ্রোণি ও পায়ের পেশিতে ব্যথা শুরু হয় এবং একসময় তা স্থায়ী হয়ে যায়। 

মাংসপেশির ক্ষতি করে

উঁচু হিলের জুতা পরলে পা সব সময় স্বাভাবিকের চেয়ে উঁচু হয়ে থাকে।  তা ছাড়া সারাক্ষণ বেশি চাপ পড়ার কারণে মাংসপেশিতে ব্যথা যেমন—‘সাইটিকা’ ও অন্যান্য জটিলতা দেখা দেয়। 

হাড়ের বড় রকমের ক্ষতি হয়

হাই হিল দীর্ঘদিন পরার কারণে পায়ের হাড় নাজুক হয়ে যায়।  হাড়ে চিড় ধরতে পারে, এমনকি কখনো কখনো তা ভেঙেও যেতে পারে। 

হাঁটুর ভীষণ ক্ষতি হয়

নিয়মিত হাই হিল জুতা পরলে হাঁটুতে চাপ পড়ে।  গবেষণা বলেছে, স্বাভাবিকের চেয়ে মাত্র পাঁচ সেন্টিমিটার উঁচু হিলের স্যান্ডেল পরলেই হাঁটুতে অন্তত ২৩ শতাংশ চাপ বেড়ে যায়।  এতে অস্টিওআর্থ্রাইটিস বা হাড় ক্ষয় রোগ হতে পারে।  পুরুষের চেয়ে নারীদের এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা দ্বিগুণের চেয়েও বেশি। 

পরামর্শ

—একান্তই হাই হিল পরতে চাইলে বেশি সরু হিল পরবেন না।  একটু চওড়া হিলের জুতা পড়ুন যাতে ভারসাম্য বজায় রাখতে সুবিধা হয়। 

—হিলের উচ্চতা যেন ৪ সেন্টিমিটারের বেশি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। 

—জুতার ভেতর নরম ইনসোল ব্যবহার করুন, এতে হাঁটুতে চাপ কম পড়বে। 

—একটানা হাই হিল পরবেন না।  সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন পরতে পারেন। 

—হাই হিল পরে সব সময় বসে থাকবেন না।  কাজের ফাঁকে বা বসে থাকার সময় জুতা খুলে রাখুন। 

—সময় পেলে পায়ের হালকা ব্যায়াম করুন।