৩:২১ এএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | | ৯ মুহররম ১৪৪০


হবিগঞ্জে মাদ্রাসার জায়গা বিক্রির প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ করে মানববন্ধন

০১ জুলাই ২০১৮, ১১:৫৭ পিএম | সাদি


আখালাছ আহমেদ প্রিয়, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার  পানিউম্দা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মাদ্রাসার জায়গা আত্মসাতের ঘটনায় ফুসে উঠছেন এলাকাবাসী।   এ উপলক্ষে রবিবার দুপুরে  মহা সড়ক অবরোধ করে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসি। 

এতে বক্তারা বলেন,  সাবেক ট্রাফিক ইন্সপেক্টর দেওয়ান জাহিদ আহমেদ চৌধুরী অবসরে এসে গ্রামবাসীকে বলেন পানিউম্দা বাজারে য়ে হাফিজিয়া মাদ্রাসা পানিউম্দা গ্রামের কবরস্থানের পাশে আনার যদি আনা হয়।  তাহলে এখানে হাফিজ ছাত্ররা কোরআন পড়বে।  এর জন্য তৎকালীন বর্তমান চেয়ারম্যান ইজাজুল রহমান সহ পানিউম্দা বরকান্দি, কুর্শা গ্রামের লোকজন ও প্রবাসীরা মিলে মাদ্রাসা পরিচালনা করেন। 

এই পরিপ্রেক্ষিতে পানিউম্দা গ্রামের খলিল মিয়া ও আব্দুল ওয়াহিদদের বুঝিয়ে তাদের ২৭ শতাংশ ভুমি খরিদ করা হয়।  পরে খলিল মিয়া ও আব্দুল ওয়াহিদ বেশী টাকার আসায় ভুমি বিক্রি করে অন্যত্র বাড়ি বানান।  সরল বিশ্বাসে পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা দেওয়ান জাহিদ আহমেদ চৌধুরীকে মাদ্রাসার ক্যাশিয়ার সহ দায়িত্ব দেওয়া হয়।  এই সুযোগে সে তার নামে ও তার স্ত্রী বদরুন নাহার চৌধীর নামে ২৭ শতক জায়গার দলিল করে নেয়। 

এখবর শুনে গ্রামবাসী সাবেক পুলিশ কর্মকর্তাকে জিঞ্জাস করলে।  সে মাদ্রাসার নামে জায়গা ফিরিয়ে দিচ্ছি দিব বলে চলতেছে।  হঠাৎ শুনা যায় য়ে এই মাদ্রাসার জায়গা নাজমুল নামে এক লোকের কাছে বিক্রি করার পায়তারা করতেছে।  তাই বার বার প্রতিবাদ করে ও সুফল পায়নি এলাকাবাসী তাই পানিউম্দা, বরকান্দি, কুর্শা গ্রামবাসী গতকাল শুক্রবার বিকাল ৪টায় পানিউম্দা বাজারে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে প্রতিবাদ ও মানববন্ধন পালন করেন এবং ৭২ ঘন্টার ভিতরে যদি মাদ্রাসার জায়গা বুঝিয়ে এবং এলাকাবাসীর কাছে ক্ষমা না চান তাহলে কটুর আন্দোলনে আল্টিমেটাম দেন। 

এতে বক্তব্য রাখেন পানিউম্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইজাজুল রহমান, ওয়ার্ড মেম্বার আরজদ আলী, মুহিত মিয়া,সাবেক মেম্বার মুনসুর আলম,আবুল ফজল,বিশিষ্ট্য মুরব্বি মাওলানা আব্দুল মুনিম জিহাদী,পানিউম্দা বাজার সভাপতি আনিছ মিয়া, আওয়ামীলীগ নেতা, এয়াওর মিয়া প্রমুখ।